পবিত্রতা, ভালবাসা এবং বেশ্যা…

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

 

 

ঠোঁট খসে পড়ুক, বার্ধ্যকের দাগ প্রাণান্তে হারাক।

সমাজচ্যুত হওয়ার জন্য দায়ী ছিলাম আমি,

কার্যত আমি ভালবেসেছি একজন বেশ্যাকে।

যেহেতু সমাজে বেশ্যাকে ভালবাসা পাপ এবং রাষ্ট্রদ্রোহিতার শামিল।

সেহেতু মৃত্যুদন্ড একান্ত প্রাপ্য।

যদিও সমাজ বলে,’বেশ্যাকে ছিঁড়ে খাও, ইহা জায়েজ তথাপি বেশ্যাকে ভালবেসো না কারন ইহা হারাম’।

এ রায়ে ঈশ্বর নিশ্চয়ই সন্তুটি জানিয়েছেন।

 

যেহেতু বেশ্যাকে ভালবাসা পাপ সেহেতু,

রাষ্ট্রের প্রতিটি ‘ভালবাসা’ বাজেয়াপ্ত ঘোষনা করা হল।

 

প্রেম একটি শব্দ এবং ভালবাসা একটি মিথ্।

পুরুষতান্ত্রিক সমাজ যেরূপ নারী ধর্ষনের খায়েশ মেটায়।

আমিও ঠিক সেরকম একটি দৃশ্যের স্বপ্ন দেখি,

যেখানে গতন্ত্রের গলায় বেড়ি পরিয়ে হাঁটু গেড়ে ধর্ষন করা যায়।

তাই, হস্তমৈথুন শেষে সংবিধান পাঠ করি।

 

অত:পর ধর্মান্ধরা মৈথুন সেরে নেয় ধর্মভীরুদের হাতে।

সেই থেকে রাষ্ট্রে আর কখনও বেশ্যাকে ভালবাসতে দেখা যায়নি।

 

আবার বছর কুঁড়ি পর নাহয় এমন কারো ভালবাসার জন্য অপেক্ষা করব,

সমাজে যার ডাকনাম হবে ‘বেশ্যা’।

 

-Riadab Tamim

লাইক দিন

জোবায়ের, জবি প্রতিনিধি #

JnU Student.

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.