,

কুড়িগ্রামে ভয়াবহ নদী ভাঙন শুরু

বন্যার পানি কমতে না কমতেই কুড়িগ্রামের বিভিন্ন এলাকায় শুরু হয়েছে নদী ভাঙন। এরই মধ্যে ব্রহ্মপুত্র নদের ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে রৌমারী-রাজিবপুর উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। রাজারহাট উপজেলার বিদ্যানন্দ ও নাজিমখান ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে তিস্তা নদীর ভাঙন ক্রমেই ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। ভাঙনে বিলীন হয়ে যাচ্ছে ভিটেমাটি, গাছপালা ও আবাদি জমিসহ বিভিন্ন স্থাপনা। গত তিন দিনে ভিটেমাটি হারিয়ে গৃহহীন হয়েছে তিন উপজেলার শতাধিক পরিবার।

বন্যার পানি কমে যাওয়ার পর বাম তীর ঘেঁষে তিস্তার নদীর মূল স্রোতে প্রবাহিত হচ্ছে। ফলে বাম তীরের বিদ্যানন্দ ইউনিয়নের রতিদেব, তৈয়বখাঁ এবং পার্শ্ববর্তী নাজিমখান ইউনিয়নের সোমনারায়ণ গ্রাম পর্যন্ত দুই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে অব্যাহতভাবে ভাঙন চলছে। ক্রমেই নিশ্চিহ্ন হয়ে যাচ্ছে গ্রামগুলো। ভাঙন ঠেকাতে উজানের দিকে বালি ভর্তি জিও ব্যাগ ফেললেও, ভাঙন এলাকায় পানি উন্নয়ন বোর্ড কোন কাজ করছেন না বলে অভিযোগ বিদ্যানন্দ ইউনিয়ন পরিষদের ৮ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মণীন্দ্র নাথ বর্মনের।

এর মধ্যে তৈয়বখাঁ গ্রামে ভাঙনের ভয়াবহতা বেশি। এই গ্রামের ভিটেমাটিহারা পরিবারগুলো নতুন আশ্রয়ের খোঁজে দিশেহারা। ভাঙন ঠেকাতে দ্রুত প্রয়োজনীয় সংখ্যক গ্রোয়েন নির্মাণের জন্য প্রকল্প প্রস্তাবনা পাঠানোর আশ্বাস দিয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com