,

লাশ দাফনের অনুমতি পুলিশের

নাজিরপুরে স্বাভাবিক মৃত্যু নিয়ে তুলকালাম

জেলা প্রতিবেদক :  পিরোজপুরের নাজিরপুর উপজেলার পাজরাপাড়া গ্রামে আলম (৫০)নামে এক ব্যাক্তির হার্টএটাকে স্বাভাবিক মৃত্যূ হয়। মৃত্যুকে ভিন্নখাতে নেয়ার চেষ্টা করেছে একটি মহল। ফাঁসানোর চেষ্টা অবশেষে ভেস্তে গেল। হার্টে মৃত্যু নিয়ে তুলকালাম শেষে লাশ উদ্ধার ও ময়না তদন্ত করে দাফনের অনুমতি দিয়েছে পুলিশ। পারিবারিক কবরস্থানে আলমের দাফন সম্পন্ন করেছে তার পরিবার।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান- উপজেলার রামভদ্রা গ্রামের গৃহহীন আলম পাজড়াপাড়া গ্রামের ওয়াদুদ মল্লিকের বাড়ীতে থাকা অবস্থায় ১১ আগষ্ট শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে আলম (৫০)নামের এক ব্যাক্তি মারা যায়। ফাঁসানোর চেষ্টা করে সাধারন মৃত্যুকে ভিন্নখাতে নেয়ার চেষ্টা করে একটি মহল।

 

এনায়েত হোসেন অভিযোগ করে বলেন, আমার ভাই ওয়াদুদকে ফাঁসানোর চেষ্টা করে সাধারন মৃত্যুকে ভিন্নখাতে নেয়ার চেষ্টা করেছে।

স্থানীয়রা জানান- আলম দীর্ঘদিন ধরে হার্ট সমস্যায় ভূগছিল। এমনিতে গৃহহীন তারপর চিকিৎসার পর্যাপ্ত টাকা পয়সা না থাকায় মোসাফির বেশে বিভিন্ন এলাকায়, মাজারে ও হাটবাজারে পরের সাহায্য নিয়ে দিন চলত আলমের। একই এলাকায় বাড়ী হওয়ায় অসহায় আলমকে ওয়াদুদ মল্লিক তার বাড়ীতে রাত্রে থাকার জায়গা দেয়। রাত্রে থাকতে জায়গা দেয়ার কারণ রাস্তার পার্শ্বে বাড়ী বিধায় চোর ডাকাতের উপদ্রব থেকে রক্ষা পাওয়া। কিন্তু ঘটনা প্যাঁচ খায় এখানে আলম মৃত্যূর পর এলাকার রুস্তুম সেখ, ডালিম ডালিম এবং সাঈদী নামে পরিচিত হামিদ ওরফে চান্দু মেম্বার থানায় ফোন করে জানায় পাজড়াপাড়া গ্রামে অপমৃত্যূ হয়েছে। অপমৃত্যুর খবর পেয়ে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে পিরোজপুর মর্গে পাঠানো হয়।

 

 

বিষয়টি নিশ্চিত করে থানার ওসি হাবিবুর রহমান জানান- ময়না তদন্ত শেষে লাশ দাফনের অনুমতি দিয়ে লাশটি পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com