মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন

English Version
সংবাদ শিরোনাম :
আসন্ন নির্বাচনে ভালো প্রার্থী মনোনয়ন দিন : রাষ্ট্রপতি ইরানের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠক করতে চান ট্রাম্প শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যেতে রাজি ড. কামাল দেশের উন্নয়নে প্রধান বাঁধা মাদক সন্ত্রাস- ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারি মুন্সীগঞ্জে পুলিশের নারী ব্যারাক উদ্বোধন করলেন আইজিপি মহানগর যুবদল নেতা নয়নের অসুস্হ বাবার রোগমুক্তির জন্য দোয়া প্রার্থনা সিসিকের নতুন সিইও বিধায়ক রায় চৌধুরী সিলেট নগরীর বন্দরে রুই মাছের পেটে ৬১৪ পিস ইয়াবা, আটক ১ ঝালকাঠি -১ আসনে মনোনয়ন প্রত্যাশী মনিরুজ্জামানের ব্যাপক গনসংযোগ রাজাপুরে ১০ টাকা কেজির খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির ১২ বস্তা চালসহ ২০ টি কার্ড জব্দ
আদালতের নির্দেশ অমান্য করে চেয়ারম্যানের বেটাগিরি!

আদালতের নির্দেশ অমান্য করে চেয়ারম্যানের বেটাগিরি!



হবিগঞ্জ প্রতিনিধি: আদালতে মামলা ও থানায় জিডি করেও প্রভাবশালী চেয়ারম্যান ও মেম্বারসহ তাদের দলবলের জবর দখল ও মাটি কাটার কাজ আটকানো গেলনা! প্রশাসনকে দেখালেন বৃদ্ধাঙ্গুল।

প্রদর্শন করে থানা পুলিশের নিষেধ অমান্য করে লক্ষ লক্ষ টাকার জায়গা জোরপূর্বক দখল করার অভিযোগ উঠেছে নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের বির্তকিত চেয়ারম্যান লন্ডন প্রবাসী মুহিবুর রহমান হারুনের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় আউশকান্দি এলাকায় সচেতন মহলে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনা ও তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

এই জায়গা জবর দখল নিয়ে যেকোন সময় রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষেরও আশংকা করছেন স্থানীয় লোকজন। মামলার এজাহারে উল্লেখ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের শাহপুর মৌজাধীন হাতিমারা নদীর দক্ষিনে উলুকান্দি হাওরের পশ্চিমে একটি মনির অটো ব্রিকস্ ফিল্ডের নিজস্ব প্রয়োজনে মালিক পক্ষ হইতে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে ভূমির মালিকদের জায়গা জমি অধিগ্রহণ না করেই জোর পূর্বক আমন জমির উপর দিয়ে রাস্তা নির্মানের কাজে মরিয়া হয়ে ওঠে মনির অটো ব্রিকস্ ফিল্ডের কর্তৃপক্ষ।

সম্প্রতি, আউশকান্দি ইউনিয়নের শাহপুর মৌজার অর্ন্তভূক্ত আমুকোনা ও বেতাপুর গ্রামের লোকজনের জমির উপর দিয়ে বরাক নদীর নিকটবর্তী স্থান দিয়ে একই কায়দায় জোরপূর্বক জমি দখল করে অটো বিকস্ ফিল্ডের নিজস্ব প্রয়োজনে রাস্তা নির্মানে উল্লেখিত দুই গ্রামের লোকজনের তীব্র প্রতিবাদ ও বাঁধারমূখে রাস্তা নির্মাণ না করে নতুন কৌশল অবলম্বন করে ব্রিকস্ ফিল্ড কর্তৃপক্ষ নানা অপকৌশল করে স্থানীয় ইউপি চেয়ারাম্যান বহুল বির্তকিত মুহিবুর রহমান হারুন এর সাথে আতাত করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে চুক্তি করে উল্লেখিত মৌজাধীন জে,এল, নং ১২৬, খতিয়ান নং ১৭, সাবেক দাগ ৯০, হাল দাগ ৩৪, এরিয়া ১.৫ একর, খতিয়ান নং ৪২, সাবেক দাগ ৯০, হাল দাগ ৩৪, এরিয়া ১.০৫ শতক। এই মালিকানা ভূমির মালিকদের সাথে কোন কথাবার্তা অথবা জমি অধিগ্রহণ না করেই জবর দখল মিশনে অটো ব্রিকস ফিল্ডের পক্ষে রাস্তায় মাটি কাটার কাজ শুরুকরেন ৫নং আউশকান্দি ইউপি চেয়ারম্যান মিনাজপুর গ্রামের মৃত হাজী এখলাচুর রহমানের পুত্র মুহিবুর রহমান হারুন ও একই ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড মেম্বার রায়পুর গ্রামের মৃত রমিজ আলীর পুত্র মোঃ উস্তার মিয়া ও তাদের দলবল।

এ ঘটনায় জমির মালিক পক্ষ আউশকান্দি ইউনিয়নের বেতাপুর গ্রামের ও আউশকান্দি বাজারের ব্যবসায়ী হাজী শাহ মুস্তাকিম আলী প্রিন্স বাদী হয়ে নবীগঞ্জ থানায় চেয়ারম্যান ও মেম্বারের নাম উল্লেখ কওে একটি জিডি দায়ের করলে জিডি নং ৩৬৮/৭/৪/২০১৮ইংরেজী। এরই প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ থানার এস আই পলাশ বাবু একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে চেয়ারম্যান হারুন ও উস্তাার মেম্বারকে নিষেধ করেন। কিন্তু পুলিশ ঘটনাস্থল ত্যাগ করা মাত্রই ঐ প্রভাবশালী হারুন চেয়ারম্যান ও মেম্বার উস্তার মিয়া তাদের দলবল নিয়ে মাঠি কাটার কাজ শুরুকরে। এতে মালিক পক্ষ আবার বাধা দিলেও কোন কাজ হয়নি। ঐ সমালোচিত চেয়ারম্যান মুহিবুর রহমান হারুন ও মেম্বার উস্তার মিয়ার বিরুদ্ধে সহকারী জজ আদালত নবীগঞ্জ হবিগঞ্জে স্বত্ত মোকদ্দমা নং ২৬/২০১৮ দায়ের করিলে বিজ্ঞ আদালত আর্দেশে মালিকপক্ষের ভোগ দখলীয় নিম্ন তফশীল বর্নিত জায়গার উপর দিয়ে কোন প্রকার রাস্তা নির্মান না করার জন্য আর্দেশ প্রদান করেন। এই আদেশ অমান্য করে ভরাট কাজ শুরু করেন। এতে মালিক পক্ষের লোকজন বাধা নিষেধ করলেও প্রভাবশালীরা অমান্য করায় নবীগঞ্জ থানা পুলিশের দ্বারস্থ হন জমির মালিকগণ। এতেও কাজ হয়নি! সচেতন মহলের প্রশ্ন হারুন চেয়ারম্যানের খুটির জোর কোথায়?

এ ঘটনায় এলাকায় টানাটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যেকোন সময় বড় ধরনের রক্তক্ষয়ী সংর্ঘষের আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। এ ব্যাপারে আউশকান্দি ইউনিয়ন চেয়ারম্যান হাজী মুহিবুর রহমান হারুনের সাথে তার মোবাইল নাম্বারে বারবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন ধরেননি। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ থানার এস আই পলাশ চন্দ্র দাশ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, জিডির প্রেক্ষিতে আমি তদন্ত করে নিষেধাজ্ঞা করে আসি। তবে, যেহেতু ভূমি সংক্রান্ত ব্যাপার সেহেতু আদালতের নির্দেশ পেলেই আমরা ব্যবস্থা নিতে পারব।

Please Share This Post in Your Social Media




Leave a Reply



© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com