,

তাহিরপুর সীমান্তে চলছে জমজমাট চাঁদাবাজি বাণিজ্য, ১ জনের কারাদন্ড

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া,  সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি # সুনামগঞ্জের তাহিরপুর সীমান্তে চাঁদাবাজদের উৎপাত দিনদিন বেড়েই চলেছে। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টায় এমডি মোরাদ নামের এক চাঁদাবাজকে ১মাসের কারাদন্ড দিয়ে জেলহাজতে পাঠিয়েছে ভ্রাম্যমান আদালত। দন্ডপ্রাপ্ত চাঁদাবাজ এমডি মোরাদ উপজেলার উত্তর শ্রীপুর ইউনিয়নের তরং শ্রীপুর গ্রামের শাহানুর মিয়ার ছেলে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়,উপজেলার বালিয়াঘাট,টেকেরঘাট,চাঁরাগাঁও,বীরেন্দ্র নগর,চাঁনপুর ও লাউড়গড় সীমান্ত দিয়ে সরকারের কোটিকোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে চোরাচালানীরা দিনরাত ওপেন পাচাঁর করছে চুনাপাথর,বল্ডার পাথর,নুরি পাথরসহ বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য। আর পাচাঁরকৃত প্রতিট্রলি চুনাপাথর,বল্ডার পাথর,নুরিপাথর থেকে ১৫০টাকা ও মাদকদ্রব্য থেকে সাপ্তাহিক ১৫থেকে ২০হাজার টাকা হারে টেকেরঘাট, বালিয়াঘাট, চাঁরাগাঁও, বীরেন্দ্র নগর, চাঁনপুর ও লাউড়গড় বিজিবি ক্যাম্প ও সাংবাদিকের নাম ভাংগিয়ে চাঁদা উত্তোলন করা হচ্ছে।

প্রতিদিনের মতো গত বৃহস্পতিবার টেকেরঘাট, বুরুঙ্গাছড়া, লাকমা, চাঁনপুর ও চাঁরাগাঁও সীমান্ত দিয়ে ভারত থেকে প্রায় অর্ধকোটি টাকা মূল্যের চুনাপাথর পাচাঁর করে পাটলাই নদীতে ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করার হচ্ছিল। এসময় অনলাইন এমটিভি টুয়েন্টি ফোর ডটকম পত্রিকার সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে চাঁদাবাজ এমডি মোরাদ, তার সহযোগী সাবজল হোসেন, এমএ রাজ্জাকসহ আরো ৬জনের নামে ও বালিয়াঘাট বিজিবি ক্যাম্পের নামে চাঁদাবাজি মামলার আসামী জিয়াউর রহমান জিয়া, টেকেরঘাট ক্যাম্পের নামে চোরাচালান মামলার আসামী সোনালী মিয়া ও মরা সিদ্দিক, চাঁরাগাঁও ক্যাম্পের নামে চোরাচালানী তোতা মিয়া, মনাফ মিয়া, মাতাল জলিল মিয়া, চাঁনপুর ক্যাম্পের নামে মাদক চোরাচালান মামলার আসামী আবু বক্কর, আলমগীর ও তাদের সহযোগীরা পৃথক ভাবে চাঁদা উত্তোলন করছিল।

এখবর পেয়ে দুপুরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে এমডি মোরাদকে গ্রেফতার করে। পরে সন্ধ্যায় ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন চাঁদাবাজ এমডি মোরাদকে ১মাসের কারাদন্ড দেন। তাহিরপুর থানার ওসি মোহাম্মদ শহিদুল্লাহ এঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com