ভান্ডারিয়া বিজয় দিবসে উপজেলা চেয়ারম্যানকে বর্জনের ঘোষনা

সৈয়দ বশির আহমেদ, পিরোজপুর প্রতিনিধি | পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল স্বাধীনতা বিরোধীর সন্তান এমন অভিযোগ তুলে ভান্ডারিয়া মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ও উপজেলা আওয়ামীলীগ বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করেছে। স্বাধীনতা বিরোধির সন্তান উপজেলা চেয়ারম্যানকে বিজয় দিবসের কর্মসূচীতে গার্ড অব অনার প্রদান ও স্বাধীনতা মঞ্চে পতাকা উত্তোলন করলে বিজয় দিবসে প্রশাসনের সকল কর্মসূচী বর্জনের ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

আজ সোমবার ভান্ডারিয়া শহরের রিজার্ভ পুকুর পাড়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের দলীয় কার্যালয়ের সামনে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা ও উপজেলা আওয়ামীলীগ যৌথভাবে এক সভায় বিজয় দিবসে উপজেলা চেয়ারম্যানকে বর্জনের সিদ্ধান্ত নেয়। ওই সভায় স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা আওয়ামীলীগ নেতা কর্মীরা একাট্রা হয়ে বিজয় দিবসের অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা বিরোধীর ছেলে উপজেলা চেয়ারম্যানকে বর্জণের ঘোষণা দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উজ্জীবিত সকলকে বিজয় দিবসের কর্মসূচী স্বাধীনতা বিরোধির সন্তান বর্জনের অনুরোধ জানানো হয়।

উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ফায়জুর রশিদ খসরু জোমাদ্দার এর সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার মো. আব্দুল আজিজ সিকদার, মুক্তিযোদ্ধা রশীদ মৃধা, তোফাজ্জেল হোসেন, নিজামুল হক নান্না, মফিজুর রহমান মুন্সি, টুঙ্গিপাড়া আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক হাফিজুর রশিদ তারিক জোমাদ্দার ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক তালুকদার এনামুল কবির টিপু প্রমূখ। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আব্দুল আজিজ সিকদার, ভিটাবাড়ীয়া ইউপি চেয়ারম্যান খান এনামুল করিম পান্না, ইকড়ি ইউপি চেয়ারম্যান হুমায়ুন করিম কবির, উপজেলা আ.লীগের দপ্তর সম্পাদক প্রভাষক আব্দুল হালিম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি মো. মিজানুর নিপু জোমাদ্দার, সাধারণ সম্পাদক ওয়াহিদ মান্নান উজ্জল, পৌর আওয়ামীলীগের আহবায়ক শহিদুল আলম স্বপন সিকদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক খায়রুল ইসলাম কাইউম জোমাদ্দার, নদমূলা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সভাপতি এমরান হোসেন তালুকদার প্রমূখ।

সভায় উল্লেখ করা হয়, ভান্ডারিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল তালুকদারের বাবা মৃত আশরাফ আলী তালুকদার মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে সরাসরি স্বাধীনতার বিরোধিতা করেছেন। তিনি পাকবাহিনীর দোসর হয়ে ভান্ডারিয়ায় মুক্তিযুদ্ধ বিরোধি কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন। তাই মহান বিজয় দিবসে স্বাধীনতা বিরোধির ছেলেকে মুক্তিযোদ্ধা ও স্বাধীনতার চেতনাধারী মানুষ গার্ড অব অনার দিতে পারেন না। এসময় মুক্তিযোদ্ধারা ও আওয়ামীলীগ নেতারা প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, বিজয় দিবসের মঞ্চে স্বাধীনতা বিরোধির সন্তানের পতাকা উত্তোলনের নৈতিক অধিকার নেই।

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আতিকুল ইসলাম উজ্জল তালুকদার বলেন, বিজয় দিবসের প্রস্তুতি সভায় আওয়ামীলীগ নেতারা উপস্থিত ছিলেন । সেখানে তো এ বিতর্ক ওঠেনি। তাছাড়া আমার সাড়ে তিন বছরের উপজেলা চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালনকালে এ নিয়ে কোন বিতর্ক হয়নি। এখন কেন করা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, আমার বাবা স্বাধীনতা বিরোধি হলে তার দালিলিক প্রমান দেখান।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ




টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com