,

কাউখালীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আতঙ্কে ইউনিয়নবাসী

সৈয়দ বশির আহম্মেদ, কাউখালী (পিরোজপুর) প্রতিনিধি # পিরোজপুরের কাউখালীর শিয়ালকাঠী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জনমণে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। গত ২২ মার্চ অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সহিংসতা ভোট কেন্দ্র দখল, ফলাফল পরিবর্তন সহ নানা ঘটনায় এলাকাটি উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে। ওই ইউনিয়নে নির্বাচনের দিন দুপুর সাড়ে বারোটায় কেন্দ্র বন্ধ করা হলেও অজ্ঞাত কারণে উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে সিকদার মো. দেলোয়ার হোসেনকে বেসরকারীভাবে নির্বাচিত ঘোষনা করেন। এর প্রতিবাদে তার প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী গাজী মো. ছিদ্দিকুর রহমান নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের করেন।

এর প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন সরেজমিনে তদন্ত করে ১৭ মে নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব ফরহাদ আহম্মেদ খান স্বাক্ষরিত চিঠিতে ৪৬ নং দক্ষিণ শিয়ালকাঠী স.প্রা.বিদালয়  তালুকদারহাট কেন্দ্রের ফলাফলসহ সকল কার্যক্রম বাতিল করা হয়। এ খবর ছড়িয়ে পড়লে সিকদার মো. দেলোয়ার হোসেনের সমর্থকরা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। একই সাথে গাজী ছিদ্দিকুর রহমানের সমর্থকরা এলাকায় ব্যাপক তৎপরতা শুরু করেন। এরপর থেকে উভয় গ্রুপের সমর্থকদের মহড়ায় ওই এলাকায় অনিয়মের ফলে তাৎক্ষনিকভাবে একটি কেন্দ্র বন্ধ এবং একটি কেন্দ্রের ফলাফল ঘোষনা হলেও প্রধান নির্বাচন কমিশনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ফলাফল বাতিল করে নতুন করে নির্বাচন করার নির্দেশ দেওয়া হয়। নির্বাচনের পর থেকে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ মারামারি, অগ্নিসংযোগ, দোকানপাটে হামলাসহ ছোট বড় কোন না কোন ঘটনা প্রতিদিনই চলতে থাকে ঐ ইউনিয়নে।

গত ১৭ মে প্রধান নির্বাচন কমিশনের উপ-সচিব ফরহাদ আহম্মেদ খান স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের তালুকদারহাট সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভোটকেন্দ্রের ফলাফল বাতিল সহ সকল কার্যক্রম বাতিল করা হয়। এর পর থেকে আরও বেপরোয়া হয়ে ওঠে ইউনিয়নের দুই প্রতিদ্বন্দী চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকরা। এরই জের ধরে গত বুধবার তালুকদারহাট বাজারে দুর্বৃত্তরা দোকানপাটে হামলা চালালে ব্যবসায়ীরা বাজার ধর্মঘট রেখে মানববন্ধন করে। এর আগে গত মঙ্গলবার রাতে শিয়ালকাীঠ সাউদের খাল নামক স্থানের বাজারে জাকির হোসেনের দোকান দুর্বৃত্তরা আগুন দিয়ে ৫ লক্ষাধিক মালামালসহ দোকান পুড়ে ভষ্মিভূত হয়ে যায়। এছাড়াও প্রতিদিন তুচ্ছা তাচ্ছিল্য ঘটনায় ইউনিয়নের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে কোন না কোন বিষয় নিয়ে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

এভাবে চলতে থাকলে ইউনিয়নের দুইটি কেন্দ্রের পুন:নির্বাচন পর্যন্ত বড় ধরণের একটি ঘটনা ঘটতে পারে বলে এলাকাবাসীর আশংকা করছে। গত ২২ মার্চের নির্বাচনী ফলাফলের মধ্যে সাতটি কেন্দ্রের ফলাফলের মধ্যে বর্তমান চেয়ারম্যান সিকদার মো. দেলোয়ার হোসেন, বাতিল কেন্দ্র ও স্থগিত কেন্দ্রের আগে ৪৯১ ভোটের ব্যবধানে প্রতিদ্বর্ন্দী প্রার্থী গাজী ছিদ্দিকুর রহমানের চেয়ে অগ্রগামী ছিলেন। নির্বাচন কমিশণ কর্তৃক শিয়ালকাঠীর তালুকদারহাট কেন্দ্রের সকল নির্বাচন ফলাফল বাতিল হওয়ায় ৭টি কেন্দ্রের ফলাফলেই বর্তমান চেয়ারম্যান সিকদার মো. দেলোয়ার হোসেন মাত্র ৬৪টি ভোটের ব্যবধানে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী গাজী ছিদ্দিকুর রহমানের চেয়ে এগিয়ে আছে। দুইটি কেন্দ্রের পুন:নির্বাচন হওয়ায় দুই প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে চেয়ারম্যান হওয়ার আশার আলো দেখায় সংষর্ঘ হওয়ার সম্ভাবনাই রয়েছে বলে আশঙ্কা করছে ভোটাররা। এ ব্যাপারে প্রতিদ্বন্দী প্রার্থী চেয়ারম্যান সিকদার দেলোয়ার হোসেন জানান, ছোট খাট ঘটনায় তালুকদারহাট দোকানপাট বন্ধ ছিল আমি গিয়ে সবাইকে গিয়ে আবার পুনরায় দোকানপাট খুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি। অগ্নিকান্ডের বিষয়ে তিনি কিছু বলতে পারছেন বলে জানান।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com