,

শাশুড়িকে হত্যা করে জামাইয়ের বিষপানে আত্মহত্যা

আদিত্ব্য কামাল ব্রাক্ষণবাড়ীয়া প্রতিনিধিঃপারিবারীক কলহের জের ধরে শুশুর,শাশুড়ি, স্ত্রী ও শ্যালককে  কুপিয়ে জখম করার পর অভিমানে বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন কামাল খাঁন (৩০) নামে এক যুবক । ঘটনাস্থলেই অতিরিক্ত রক্তক্ষরনে শাশুড়ি মারা যায়।

কামাল খানের  বাড়ী নবীনগর উপজেলার বিটঘর গ্রামে । তার শুশুর বাড়ী উপজেলার কাইতলা গ্রামে হলেও বর্তমানে তারা স্থায়ী ভাবে শ্রীমঙ্গলে বাস করছেন।

আজ  (৩০ এপ্রিল) সকাল ৬টার দিকে মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলায় সিন্দুরখান রোডে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত মুরশেদা বেগম (৩৫) ওই এলাকার মনি মিয়ার স্ত্রী।
আহতরা হলেন-শ্বশুর মনি মিয়া (৪৫), কামাল খানের স্ত্রী মুক্তা বেগম (২৩) ও ভাই তামিম (২০)। তাদের শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, ১০ মাস আগে কামাল খানের সঙ্গে মুক্তা বেগমের বিয়ে হয় । মুক্তা সংসার করবে না বলে কিছুদিন আগে কামাল খানকে তালাক দেন। এর জের ধরে শনিবার সকালে কামাল খান মুক্তাদের বাড়িতে এসে ধারালো দা দিয়ে সবাইকে কুপিয়ে আহত করে।

এসময় তিনি বলেন, আমি নিজেও বাঁচবো না, তোদের ও বাঁচতে দেবোনা। এই বলে তিনি বিষপান করে আত্মহত্যা করেন।

এ ব্যাপারে বিটঘর গ্রামের এক ছাত্র নেতা জানান, কামালের স্থানীয় বীমা অফিসে চাকরী ও কম্পিউটার শিক্ষার প্রতিষ্ঠান থাকার কারনে অনেক টাকার মালিক তিনি এ ভেবেই মুক্তা বেগমের সাথে বিয়ে দিতে রাজি হন মুক্তার বাবা মা। পরে  এসবের মিল না পাওয়ার অনেকদিন ধরেই উভয় পরিবারে কলহ লেগে থাকত।  এরই জেরে এ ঘটনা টি ঘটেছে বলে তিনি জানান।

শ্রীমঙ্গল থানা সুত্র জানায়, স্থানীয়রা কামাল খানকে উদ্ধার করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শেষ খবরে জানা যায়, কামাল খানের পরিবারের লোকজন লাশ আনতে ঘটনাস্থল এলাকায় গেছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com