,

ঝিনাইদহে ভাড়ার জন্য গৃহবধূকে পিটিয়ে রক্তাক্ত করলো বাড়ির মালিক !

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ # ঝিনাইদহ শহরের পাগলাকানাই ডাইভারশন রোডে মঙ্গলবার রেবা চক্রবর্তী (৪০) নামে এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠিয়েছে বাড়ির মালিক সোমা মুন্সি। দুই মাসের ভাড়া বকেয়া থাকায় তাকে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ। হাসপাতালে ভর্তি আহত রেবা চক্রবর্তী একই এলাকার চায়ের দোকানদার বিষ্ণু চক্রবর্তীর স্ত্রী ও সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামের নিমাই চক্রবর্তীর মেয়ে। রেবা চক্রবর্তী অভিযোগ করেন, দুই মাসের বকেয়া ভাড়া নেবার জন্য সোমা মুন্সি তার কাছে ফোন করে। আমি ব্যস্ত থাকায় ফোন ধরতে পারিনি।

এরপর বাড়ির সামনে এসে সোমা মুন্সি বিশ্রি (অনুচ্চারতি) ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে। আমি প্রতিবাদ করায় তিনি আমাকে পায়ের জুতা খুলে এবং কিল ঘুষি মেরে রক্তাক্ত জখম করে। প্রতিবেশিরা আমাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। রেবা আরো জানান, ভাড়া বকেয়া পড়ার সুযোগে সোমা মুন্সি তাকে নানা ভাবে উত্যক্ত করতে। রেবার ভাগ্নে উজ্জল চক্রবর্তী জানান, আমরা বিষয়টি নিয়ে মামলা করার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। কিন্তু সোমা মুন্সি ঘটনাটি মিমাংশা ও চিকিৎসার সব খরচ বহন করার প্রস্তাব দিয়েছে।

সোমা মুন্সি আওয়ামীলীগ করার কারণে নানা ভাবে তাদের উপর চাপ দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করা হয়। বাড়ির মালিক সোমা মুন্সি জানিয়েছেন ভাড়ার টাকা চাইতে গেলে ভাড়াটিয়া রেবা তাকে গালিগালাজ করে এবং জামা ধরে টানাটানি করে। এ বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ডিউটি অফিসার এএসআই আজাহারুল ইসলাম জানান, গৃহবধূকে মারধরের কোন অভিযোগ এখনো আমরা পায়নি। তবে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেব। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি হাসান হাফিজুর রহমান জানান, বিষয়টি তদন্ত করার জন্য আমি হাসপাতালে একজন অফিসার পাঠাচ্ছি।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com