তিতুমীর কলেজ ছাত্র রাজীব আর নেই

ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) লাইফ সাপোর্টে থাকা তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব দুই বাসের মধ্যে পড়ে একটি হাত হারালেও তাকে বাঁচাতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছিলেন চিকিৎসকরা; কিন্তু মস্তিষ্কের আঘাত তাকে নিয়ে গেছে না ফেরার দেশে।

গতকাল সোমবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টা ৪০ মিনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রাজীব। আইসিইউ`র চিকিৎসক ডা. রেজার বরাত দিয়ে বিষয়টি জানিয়েছেন রাজীবের চাচা আল আমিন। ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপ-পরিদর্শক (এসআই) বাচ্চু মিয়াও বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

গত ৩ এপ্রিল ঢাকার কারওয়ান বাজারে দুই বাসের রেষারেষিতে মধ্যে পড়ে একটি হাত হারানোসহ মাথায় গুরুতর জখম হয়েছিল তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীবের। শমরিতা হাসপাতাল থেকে পরদিনই রাজীবকে নেওয়া হয়েছিল ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে; অবস্থার অবনতি ঘটলে এক সপ্তাহ আগে তাকে নেওয়া হয়েছিল লাইফ সাপোটে।

আজ মঙ্গলবার সকালে রাজীবের মরদেহ তার গ্রামের বাড়ি বাউফল নিয়ে যাওয়া হবে। পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামের রাজীব তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ার সময় মা এবং অষ্টম শ্রেণিতে পড়ার সময় বাবাকে হারান। ঢাকার মতিঝিলে খালার বাসায় থেকে এসএসসি ও এইচএসসি পাস করে ভর্তি হন স্নাতকে।

পড়ালেখার ফাঁকে একটি কম্পিউটারের দোকানে কাজ করে নিজের আর ষষ্ঠ ও সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া দুই ভাইয়ের খরচ চালানোর সংগ্রাম করে আসছিলেন এই তরুণ। এদিকে রাজীবের মৃত্যুতে জাতীয় অধিকার আন্দোলন শোক জানিয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করবে তারা।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ




টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com