বৃহস্পতিবার, ২১ Jun ২০১৮, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন



ভেতরে নৌকায় সিল, বাইরে ভোটারদের অপেক্ষার প্রহর

ভেতরে নৌকায় সিল, বাইরে ভোটারদের অপেক্ষার প্রহর



ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ও কসবা উপজেলার ১৯টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। শনিবার সকাল ৮টা থেকে ১৮৫টি কেন্দ্রে একযোগে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। তবে ভোটগ্রহণের শুরুতেই ভোটকেন্দ্রগুলোতে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ করেছেন সাধারণ ভোটাররা।

সকাল ৯টার দিকে সদর উপজেলার রামরাইল ইউনিয়নের সুহাতা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, কেন্দ্রের বাইরে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন। তবে ভোটারদের অভিযোগ, তাদের ভোট দেয়ার জন্য কেন্দ্রে প্রবেশ করতে দিচ্ছেন না আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. সাহাদাত খানের লোকজন। ভেতরে পুলিশের সহযোগিতায় প্রকাশ্যে নৌকা প্রতীকে সিল মারছেন তারা।

ভোট দিতে আসা সুহাতা গ্রামের গৃহবধূ সুমা বেগম অভিযোগ করে বলেন, সকাল পৌনে ৮টা থেকে বাড়ির কাজ ফেলে ভোট দেয়ার জন্য লাইনে এসে দাঁড়িয়ে আছি। এখন পর্যন্ত ভোট দিতে কেন্দ্রের ভেতরে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। ভেতরে নৌকার প্রার্থীর লোকজন দরজা আটকে সিল মারছেন। সুহাতা গ্রামের আরেক গৃহবধূ আম্বিয়া বেগমও একই অভিযোগ করেন। তিনিও দেড় ঘণ্টা ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে অপেক্ষা করছেন কিন্তু ভোট দিতে পারছেন না। তবে ভোটারদের এ অভিযোগ অস্বীকার করেন সুহাতা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং অফিসার মো. মানিকুজ্জামান।

পুলিশের সহযোগিতায় নৌকায় প্রকাশ্যে সিল মারার অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে জেলার পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান বলেন, `বিষয়টি আমি দেখছি`। সুহাতা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্র ছাড়াও বেশ কয়েকটি কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর লোকজন জাল ভোট দিচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন ৫৪ জন এবং কসবা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে লড়ছেন ৩০ জন প্রার্থী।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Please Share This Post in Your Social Media








© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com