,

কম্বোডিয়া সঙ্গে বাংলাদেশের ৯ সমঝোতা, ১ চুক্তি

বাংলাদেশ-কম্বোডিয়ার মধ্যে ১টি চুক্তি ও ৯টি সমঝোতা চুক্তি স্মারক সই হয়েছে। বাংলাদেশ সময় সোমবার (৪ ডিসেম্বর) কম্বোডিয়ার স্থানীয় সময় সকালে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর বৈঠক শেষে চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। সূত্র- সময় টিভি। দুদেশের মধ্যকার এই চুক্তি দেশ দু’টির বাণিজ্য সম্প্রসারণে ভূমিকা রাখবে বলে আশা করছেন দুই দেশের কর্তা ব্যক্তিরা। এর আগে সকাল সাতটার দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশটির প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে পৌঁছান। তাকে স্বাগত জানান হুন সনে। পরে কম্বোডিয়ার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে আটটায় তাদরে মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে দু’দেশের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় ও বাণিজ্য সম্প্রসারণে আলোচনা হয়। তিনদিনের সফর শেষে আগামীকাল প্রধানমন্ত্রী দেশে ফেরার কথা রয়েছে।

এছাড়াও কম্বোডিয়ায় অবস্থানরত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘মিয়ানমার থেকে বিভিন্ন সময়ে বাস্তুচ্যুত হয়ে প্রায় ১০ লাখ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। আমরা তাদের সাধ্যমতো আশ্রয়, খাদ্য দিচ্ছি।  তাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনের জন্য বাংলাদেশ ও মিয়ানমার কাজ করে যাচ্ছে। এরই মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে। আমি রোহিঙ্গাদের সুষ্ঠুভাবে প্রত্যাবাসনের জন্য কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করছি।’

সোমবার সকালে কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেনের কার্যালয় পিস প্যালেসে এক চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠান শেষে এসব কথা বলেন তিনি। এদিকে কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী হুন সেন ও বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে দুই দেশের মধ্যে বিভিন্ন খাত নিয়ে কাজ করার জন্য একটি চুক্তি ও নয়টি সমঝোতা স্মারক সই করা হয়েছে। এর আগে কম্বোডিয়ার প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় পিস প্যালেসে এই দুই নেতার মধ্যে বৈঠক হয়। সোমবার সকালে এসব চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। কম্বোডিয়ার সঙ্গে চুক্তির কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘এসব চুক্তি দুই দেশের সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার রাখছে। এসব চুক্তির মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক নতুন মাত্রায় উন্নীত হবে।’

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com