,

যানবাহনের চাপে মহাসড়কে যানজট চরম আকার ধারণ করেছে

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে টানা চতুর্থ দিনের মতো (রোববার) যানজট লেগে রয়েছে। ফলে যানজটে অতিষ্ঠ ঘরমুখো মানুষকে পোহাতে হচ্ছে সীমাহীন দুর্ভোগ। তবে ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্টগ্রাম রোডে যানজট তুলনামূলক কম।  

এদিকে শেষ মুহূর্তে বাড়ি ফিরতে কমলাপুর রেলস্টেশনে বেড়েছে ভিড়। কিন্তু বিমানবন্দর স্টেশনে সিলেটগামী পারাবত এক্সপ্রেসে যান্ত্রিক ত্রুটি দেখা দেয়ায় মারাত্মক শিডিউল বিপর্যয়ে পড়েছে ছেড়ে যাওয়ার অপেক্ষায় থাকা ট্রেনগুলো।  

পারাবত এক্সপ্রেস প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর বিমানবন্দর স্টেশন থেকে ছেড়ে গেলে ঢাকা থেকে ট্রেন চলাচল ধীরে ধীরে শুরু হয়। এরপরই কমলাপুর স্টেশনে আটকে থাকা ট্রেনগুলো ধীরে ধীরে গন্তব্যের উদ্দেশ্যে ছাড়তে শুরু করে।

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে উত্তরবঙ্গের ১৭ জেলাসহ মোট ২৪ জেলার গাড়ি দুই লেনের এই রাস্তায় চলাচল করছে। অন্যদিকে দৌলতদিয়া পাটুরিয়া রুটের গাড়িও চলাচল করছে একই রাস্তায়। সকাল থেকেই গাড়ির প্রচুর চাপ থাকায় থেমে থেমে চলছে গাড়ি।  

রোববার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে মির্জাপুর বাইপাস এলাকা থেকে গোড়াইয়ের ক্যাডেট কলেজ পর্যন্ত প্রায় ১০ কিলোমিটারজুড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়। ওই সময় যান চলাচল পুরোপুরি থেমে ছিল। তবে টাঙ্গাইলগামী যানবাহন থেমে থেমে চলছে।  

মহাসড়কে যাত্রাপথে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন জায়গায় গাড়ি বিকল হয়ে পড়ছে। এসব গাড়ি সরিয়ে রাস্তা খালি করতেও যথেষ্ট সময় লাগছে বলে জানিয়েছেন দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা। এছাড়া ধেরুয়া রেলক্রসিংয়ে ট্রেন চলাচলের সময় বারবার যানবাহন থামাতে হচ্ছে। এতে যানজট বাড়ছে আরো বেশি।

বিকেলের দিকে যানবাহন ও যাত্রীর সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে জানিয়েছেন মির্জাপুরের গোড়াই হাইওয়ে থানার উপ-পরিদর্শক মোতালেব হোসেন। তবে ঘরমুখো যাত্রীদের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে পুলিশ নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বলে জানান তিনি।

কুড়িগ্রামগামী এক মিনিবাসচালক জানান, চন্দ্রা থেকে মির্জাপুর ২০ মিনিটের পথ। কিন্তু এটুকু পথ যেতে  দেড় ঘণ্টা লেগেছে। মির্জাপুরে আসার পরও দীর্ঘ সময় বসে থাকতে হয়েছে।

কোনাবাড়ী হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির (ওসি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হোসেন সরকার জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কের যানজট নিরসনে তারা কাজ করে যাচ্ছেন।

নাওজোড় হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সালাম জানান, সকাল থেকেই ভোগড়া বাইপাস থেকে বোর্ডবাজার পর্যন্ত ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কে থেমে থেমে যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

মির্জাপুর থানার (ওসি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়কে সকাল ৮টার পর হঠাৎ যানবাহনের চাপ বেড়েছে। ফলে যানজট তীব্র আকার ধারণ করেছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে পুলিশ কাজ করছে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com