ও আমাকে কী পেটাবে, আমিই ওকে মারি

নববার্তা রিপোর্ট : সৈয়দা রাবেয়া নাঈমা ক্রিকেট বুঝেন না। যে তাসকিনের পেছনে তরুণী ও কিশোরীরা মরিয়া হয়ে ঘোরে, সেই তাসকিনকে একটা সময় তিনি পাত্তাই দিতেন না। কিন্তু যখন সম্পর্ক হয়েছে তারপর থেকে নিজের ভালোবাসা দিয়ে আগলে রেখেছেন এ তরুণকে।

তাকে মারধর করার সংবাদ নিয়ে সবচেয়ে বেশি বিস্মিত নাঈমা নিজেই। তিনি বলেন, ‘আমি আসলে কী লিখেছে তা পড়িনি, দেখিওনি। ওর (তাসকিন) মুখে শুনে নিজের হাত পা দেখলাম, বললাম ও আমাকে কখন মারলো! কেন মানুষ এইগুলো ছড়াচ্ছে আমি জানিনা। সত্যি হলে মেনে নিতাম বা আমি নিজেই বলতাম।

অন্যদিকে স্বামীকে নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে কতটা সুখে আছেন তা নিয়ে নাঈমা বলেন, ‘বিয়ে হয়েছে সাড়ে চার মাস। এর মধ্যে আমি একবার শুধু বাবার বাসাতে গিয়েছি। সত্যি কথা বললে হয়তো আমার বাবা-মা কষ্ট পাবেন। কিন্তু এটাই সত্যি যে আমি আমার বাবার বাড়ির চেয়েও এখানে সুখে আছি। এত ভালোবাসা আমি আমার বাবার বাড়িতে পেয়েছি কিনা জানি না।

তাসকিনের স্ত্রী বলেন, ‘চাওয়ার আগেই আব্বা-আম্মা (তাসকিনের বাবা, মা) সব হাজির করে দেন। তাই দেশবাসীর কাছে অনুরোধ করবো এসব মিথ্যা সংবাদে কান দিবেন না। আমাদের জন্য দোয়া করবেন, আমার স্বামীর জন্য দোয়া করবেন সে যেন ভালো ক্রিকেট খেলে দেশের জন্য সম্মান বয়ে আনে।

দু’জনের সম্পর্কটা কত মধুর তা নিয়ে নাঈমা বলেন, ‘ও আমাকে কী পেটাবে, আমিই তো মাঝে মাঝে ওকে দুষ্টমি করে মারি। সত্যি কথা বলতে তাসকিন মানুষ হিসেবে অনেক অনেক ভালো।

নববার্তা/নজরুল

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ




টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com