,

কঠিন পরীক্ষা দিতে ইকুয়েডরে আর্জেন্টিনা

বাংলাদেশ সময় বুধবার ভোর সাড়ে পাঁচটায় বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে ইকুয়েডরের বিপক্ষে যে ম্যাচটিতে মাঠে নামবে আর্জেন্টিটনা তা সমুদ্র পৃষ্ঠ থেকে ২৭৮২ মিটার উঁচুতে।  তাই সহজেই বলা যায়, ম্যাচটি আর্জেন্টিনার জন্য বড়ই দুরুহ হয়ে যাবে।  কারণ এমন মাঠে খেলতে মোটেও অভ্যস্ত নয় মেসি-দিবালারা।

লক্ষণীয় যে, সর্বশেষ ম্যাচে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে উঁচু বলিভিয়ায় খেলতে গিয়ে কি হাঁসফাসই না করেছেন ব্রাজিলের নেইমাররা। গোলশুন্য ড্রয়ের পর ড্রেসিংরুমে গিয়ে অক্সিজেন মাস্ক পর্যন্ত লাগাতে হয়েছে তাদের। এর পর তো নেইমার বলেই দিয়েছেন, ওই মাঠে খেলা অমানবিকই বটে।  এছাড়া বিরক্ত প্রকাশ করেন অনান্য খেলোয়াড়রাও। এতো গেল কন্ডিশনের বৈরিতা। খেলার পরিসংখ্যানের দিকে তাকানো যাক। ইকুয়েডরের মাঠে ২০০১ সালের পর কোনো ম্যাচ জিততে পারেনি আর্জেন্টিনা। রাজধানী কুইটোতে দলটির সঙ্গে সর্বশেষ তিন সাক্ষাতে দুইবারই পরাজয়ের স্বাদ নিতে হয়েছে আলবিসেলেস্তেদের।

এদিকে উরুগুয়ের কোচ অস্কার তাবারেজ অবশ্য মনে করছেন না, এমন হলেও মেসির সব অর্জন ম্লান হয়ে যাবে। তিনি বলেন, ‘ফুটবল ইতিহাসে এমন অনেক গ্রেট খেলোয়াড় আছেন যাদের দল বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়নি। এটা তাদের ক্যারিয়ার কলঙ্কিত করে নি।’ আর্জেন্টিনা শেষপর্যন্ত বিশ্বকাপ নিশ্চিত করতে পারলে টুর্নামেন্টের ফেভারিট হিসেবেই খেলবে, মনে করছেন তাবারেজ। মেসিকে নিয়ে তিনি বলেন, ‘আর্জেন্টিনার হয়তো বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করতে কষ্ট হচ্ছে, তবে একবার তারা সেটা করে ফেললে ফেভারিট হিসেবেই খেলবে। মেসি বড় খেলোয়াড়, কিন্তু একা সব করা যায় না। ফুটবল একটা টিম গেম।’

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com