,

বিপিএলে ১০ ভারতীয়সহ ৭৭ জুয়াড়ি আটক

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) ঘিরে সারাদেশে পড়েছে জুয়ার হিড়িক। বাদ যায়নি স্টেডিয়ামের গ্যালারিও। সেখান থেকে এখন পর্যন্ত ১২ বিদেশিসহ ৭৭ জন জুয়াড়িকে ধরেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) দুর্নীতি দমন বিভাগ। এর মধ্যে ৬৫ জন বাংলাদেশি, ১০ জন ভারতীয় এবং ২ জন অন্য দেশের। সবাইকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সংবাদ সম্মেলনে বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক এসব তথ্য জানান।

বিপিএলে জুয়া খেলার অভিযোগে ১০ ভারতীয়সহ ৭৭ জুয়াড়িকে স্টেডিয়াম থেকে আটক করা হয়েছে। বিসিবির দুর্নীতি দমন বিভাগ শুক্রুবার ম্যাচ চলাকালীন সময় স্টেডিয়াম এলাকা থেকে তাদের আটক করে। তারা খেলা চলাকালীন সময়ে গ্যালারিতে বসেই জুয়ায় সহযোগিতা করছিল। গত বছরেও প্রায় শতাধিক জুয়ারিকে আটক করেছিল বিসিবি। বিসিবির বিশেষ দল অনুসন্ধান করে তাদের সনাক্ত করার পরেই পুলিশে ধরিয়ে দেয়। তবে গত বছর ভারতীয়দের সংখ্যা বেশি থাকলেও এবার দেশিদের সংখ্যাই বেশি।

আজ সংবাদ সম্মেলন করে বিসিবির পক্ষে বলেন বিপিএলের সদস্য সচিব ইসমাইল হায়দার মল্লিক জানালেন, ‘সারা দেশে ক্রিকেট জুয়া বন্ধে তাদের খুব বেশি কিছু করার নেই। তবে স্টেডিয়ামে কাউকে যদি বেটিং করতে দেখা যায়, সেটি বন্ধে বিসিবি সর্বোচ্চ ব্যবস্থাই নেবে। এরই মধ্যে ৭৭ জন জুয়াড়িকে ধরেছে বিসিবি। এর মধ্যে বাংলাদেশের ৬৫ জন। ১২ বিদেশি জুয়াড়ির ১০ জনই ভারতীয়। সবাইকে পুলিশের কাছে তুলে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু দেশে ক্রিকেট জুয়া নিয়ে আইন না থাকায় তাদের বিরুদ্ধে মামলা বা সাধারণ ডায়েরি করা যায়নি।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন সাবেক অধিনায়ক ও ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির প্রধান আকরাম খান ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস। মাঠের চেয়ে টিভি-রেডিওতে কিছুক্ষন পরে সম্প্রচার হওয়ায় জুয়ারিরা মাঠে বসেই চালাতে থাকে তাদের জুয়া কার্যক্রম। বল বাই বল ফোন দিয়েই বাইরে আপডেট জানানো হয়।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com