,

সুয়ারেজের হ্যাট্রিকে বার্সার বড় জয়

বুধবার রাতে দেপোর্তিভোর মাঠে চার গোল করা ছাড়াও ইভান রাকিতিচ, লিওনেল মেসি ও নেইমারের গোলে অবদান রেখেছেন সুয়ারেস। ৮-০ গোলের বিশাল এই জয়ে বাকি গোলটি মার্ক বার্ত্রা করেন একক প্রচেষ্ঠায়। ম্যাচের সপ্তম মিনিটে প্রথম ভালো সুযোগটা পেয়েছিল বার্সেলোনা। স্প্যানিশ মিডফিল্ডার আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার বাড়ানো বলে সুয়ারেসের শট লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। একাদশ মিনিটে ‘এমএসএন’ ত্রয়ীর ছোঁয়ায় গোলের আরেকটি সুযোগ এসেছিল। নেইমারের নীচু ক্রসে সুয়ারেসের ফ্লিকে বল পেয়ে মেসির নেওয়া জোরালো শট কর্নারের বিনিমযে ঠেকান গোলরক্ষক। তবে রাকিতিচের নেওয়া ওই কর্নার থেকেই এগিয়ে যায় বার্সেলোনা।

কর্নার থেকে বল এসে পড়ে প্রায় ফাঁকায় দাঁড়িয়ে থাকা সুয়ারেসের কাছে। সরাসরি বল জালে ঠেলে দেন উরুগুয়ের এই ফরোয়ার্ড। তিন ম্যাচ পর গোলের দেখা পেলেন তিনি। ১৯তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ হারায় দেপোর্তিভো। ছোটো ডি-বক্সে বল পেয়ে গোলরক্ষককে একা পেয়েও লক্ষ্যভেদ করতে পারেননি সেলসো বর্হেস। স্বদেশী গোলরক্ষক ক্লাওদিও ব্রাভোকে কাটাতে দিয়ে সময় নিয়ে ফেলেন তিনি; পরে কোস্টা রিকার এই মিডফিল্ডারের শট ঠেকিয়ে দেন মার্ক বার্ত্রা। ফিরতি বলে ক্রসবারের উপর দিয়ে শট নেন অরিওল রিয়েরা।

২৪তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ান সুয়ারেস। মেসির দুর্দান্ত পাসে বল পেয়ে সামনে থাকা গোলরক্ষককে কোনাকুনি শটে পরাস্ত করেন উরুগুয়ের এই তারকা স্ট্রাইকার। ১০ মিনিট পর হ্যাটট্রিকের সহজতম সুযোগ হারান সুয়ারেস। ডান দিক থেকে দানি আলভেসের ক্রসে ঠিকমতো পা ছোঁয়াতে পারেনি তিনি। বিরতির পর দ্বিতীয় মিনিটেই গোল পেয়ে যায় বার্সেলোনা। বাঁ দিক থেকে সুয়ারেসের ক্রসে বল পেয়ে প্রথম সুযোগেই জালে জড়িয়ে দেন ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ডার রাকিতিচ। ৫৩তম মিনিটে মেসির দুর্দান্ত বাড়ানো বলে ডান পায়ে নেওয়া শটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন সুয়ারেস।Luis Suarez celebrates scoring his hat-trick.৬৪তম মিনিটে সুয়ারেসের চতুর্থ গোলে বড় অবদান নেইমারের। মেসির লম্বা পাসে বল পেয়ে নিজে শট না নিয়ে ব্রাজিল অধিনায়ক বল পাঠিয়েছিলেন ডানে ফাঁকায় থাকা সুয়ারেসকে। লা লিগার এই মৌসুমে ৩০টি গোল করে গোলদাতাদের তালিকায় রোনালদোর (৩১) পেছনেই আছেন সুয়ারেস। ৭৩তম মিনিটে গোলের দেখা পান আগের ম্যাচেই ক্যারিয়ারের ৫০০তম গোল করা মেসি। ডান দিক থেকে এক ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে ডি-বক্সের মাঝে বল পাঠিয়েছিলেন সুয়ারেস। দুই ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে তা অনায়াসে জালে জড়িয়ে দেন আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। এবারের লা লিগায় মেসির এটা ২৪তম গোল।

ছয় মিনিট পরেই একক প্রচেষ্ঠায় বল নিয়ে ডি-বক্সে এগিয়ে গোল করেন জেরার্দ পিকের জায়গায় খেলতে নামা মার্ক বার্ত্রা। ৮১তম মিনিটে আবারও গোলে অবদান রাখেন সুয়ারেস। ডান দিক থেকে তার পাসে গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে নেওয়া শটে পাঁচ ম্যাচ পর গোল করেন নেইমার। লা লিগার এই মৌসুমে ব্রাজিলের এই ফরোয়ার্ডের গোল হলো ২২টি। দুর্দান্ত এই জয়ে জমে ওঠা শিরোপা লড়াইয়ে ৩৪ ম্যাচে ৭৯ পয়েন্ট নিয়ে সবার উপরেই থাকল বার্সেলোনা।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com