শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮, ১০:৪৭ অপরাহ্ন

সেহরী ও ইফতার সময় :
আজ ২৪ মে বুধবার, রমজান- ৭, সেহরী : ৩-৪২ মিনিট, ইফতার : ৬-৪২ মিনিট, ডাউনলোড করে নিতে পারেন পুরো ফিচার- সেহরী ও ইফতার-এর সময়সূচী


ভারত-শীলঙ্কা ম্যাচে ডিআরএস-বিতর্ক

ভারত-শীলঙ্কা ম্যাচে ডিআরএস-বিতর্ক



কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে দ্বিতীয় ইনিংসে ভারতের দুর্দান্ত প্রতিরোধকে ছাপিয়ে আলোচনায় এসেছে ডিসিশন রিভিই সিস্টেম (ডিআরএস) বিতর্ক। শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান দিলরুয়ান পেরেরা দলের প্রথম ইনিংসে লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়ে সাজঘরের দিকে হাঁটা দেন। তবে মুহূর্তেই সিদ্ধান্ত পাল্টে রিভিউর আবেদন জানান। পরে সেই আবেদনে জয়লাভও করেন তিনি। রিভিউ নেয়ার ক্ষেত্রে পেরেরা ড্রেসিং রুমের খেলোয়াড় কিংবা কর্মকর্তাদের কোনো সাহায্য নিয়েছেন কি না সেটি নিয়ে জোর আলোচনা ও তর্ক-বিতর্ক চলছে।

লেগ বিফোর হয়ে ফেরার সময় ৭ বলে ০ রানে ছিলেন পেরেরা। আম্পায়ার নাইজেল লংয়ের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে রিভিউতে জয়লাভ করে ক্রিজে ফিরে রঙ্গনা হেরাথের সঙ্গে ২৭ বলে ৪৩ রানের জুটি গড়েন তিনি। অবশ্য তাতে পেরেরা অবদান মাত্র ৫ রান। ভারতের জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার সঞ্জয় মাঞ্জেরেকার অবশ্য এই ক্ষেত্রে ড্রেসিং রুমের সহায়তা নেয়ার পক্ষে সাফাই গান। আইন পরিবর্তনের দাবিও জানান তিনি।

রোববার কলকাতা টেস্টের চতুর্থ দিন শেষে মাঞ্জেরেকার বলেন, ‘আমরা টিভিতে যা দেখেছিলাম তাতে করে মনে হচ্ছে ডিআরএসের জন্য ড্রেসিং রুমের নির্দেশনা ছিল। কিন্তু অবশ্যই এই ব্যাপারে কোনো স্পষ্ট প্রমাণ নেই। আমি মনে করি এমন নিয়ম নিয়ে নতুন করে ভাবা উচিত এবং প্রয়োজনে আইনে পরিবর্তন আনা উচিত। ফিল্ডিং দলে ১১ জন খেলোয়াড় থাকে এবং রিভিউর ক্ষেতে তারা চাইলে একে অন্যের সঙ্গে আলোচনা করতে পারে। সুতরাং, দুই দলের জন্যই নিয়ম একই হওয়া উচিত।’

অবশ্য ডিআরএস নিয়ে এমন আলোচনা নতুন কিছু নয়। চলতি বছর আবু ধাবি টেস্টে পাকিস্তানি পেসার মোহাম্মদ আব্বাসের বলে শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান কুশল মেন্ডিসকে আম্পায়ার রিচার্ড কেটেলব্রু এলবিডব্লিউ আউট দিলে সাজঘরের দিকে হাঁটা দেন তিনি। তবে মুহূর্তের ব্যবধানে পেছনে ফেরে রিভিউ নেন তিনি। যদিও রিভিউতে সফল হননি লঙ্কান ব্যাটসম্যান। সেই টেস্টে অপর প্রান্তে আম্পায়ারের ভূমিকায় ছিলেন নাইজেল লংই।

এর আগে চলতি বছর ব্যাঙ্গালুরু টেস্টে উমেশ যাদবের বলে অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথ লেগ বিফোর আউট হয়ে সাজঘরে ফেরার পথে ফিরে এসে রিভিউ নেন। তবে তার বিপক্ষে ড্রেসিং রুমের সহায়তা নেয়ার অভিযোগ ওঠে। স্মিথ সেই অভিযোগ স্বীকার করে জানান, মস্তিষ্ক বিকৃতি ঘটার কারণেই এমনটি করেছেন তিনি। মজার ব্যাপার হলো- সেবার আম্পায়ারের ভূমিকায় ছিলেন লংই।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

Please Share This Post in Your Social Media








© 2018 Nobobarta । Privacy PolicyAbout usContact DMCA.com Protection Status
Design & Developed BY Nobobarta.com