,

কোহলিদের সামনে মুস্তাফিজদের রানের পাহাড়

টস জিতে ব্যাট করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২০৮ রান করেছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। শুরুতে ওয়ার্নার (৬৯)-ধাওয়ান (২৮) ঝড় তুলে বড় স্কোরের ভিত গড়ে দিয়ে যান। মাঝখানে যুবরাজ (৩৮) তাল দেন। শেষ দিকে ঝড় তোলেন কাটিং।

শেষ ওভারে বোলিং করতে আসলেন শেন ওয়াটসন। ব্যাটসম্যান আরেক অস্ট্রেলিয়ান, বেন কাটিং। এই এক ম্যাচ দিয়েই হয়তো শেন ওয়াটসনের আইপিএল ক্যারিয়ার শেষ করে দিলেন কাটিং। শুধু শেষ ওভারেই ২৪ রান নিলেন কাটিং। ৪ ওভার বল করে ৬১ রান দিলেন ওযাটসন। কাটিংয়ের মোট রান ১৫ বলে ৩৯।

টস জিতে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েই অবশ্য সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন ডেভিড ওয়ার্নার। তবে সেটি যে আসলেই তাক লাগানোর মত ছিল না তা প্রমাণ করলেন, ব্যাট করতে নেমে। শিখর ধাওয়ানকে নিয়ে ৬.৪ ওভারেই করে ফেললেন ৬৩ রানের জুটি। ২৫ বলে ২৮ রান করে ধাওয়ান আউট হয়ে গেলেও ওয়ার্নার ঝড় অব্যাহত থাকে। অবশ্য তিন নম্বরে নামা মইসেস হেনরিক্স ৫ বল খেলে আউট হন ৪ রান করে।

যুবরাজ সিং এসে ভালো একটা জুটি গড়েন ওয়ার্নারের সাথে। যদিও ৩৮ বলে ৬৯ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে শ্রীনাথ অরবিন্দের বলে ইকবাল আবদুল্লাহর হাতে ধরা পড়ে বিদায় নেন তিনি। ৮টি বাউন্ডারির সঙ্গে ৩টি ছক্কায় সাজানো ছিল ওয়ার্নারের ইনিংস।

২৩ বলে ৩৮ রান করে আউট হন যুবরাজ সিং। ৪টি বাউন্ডারির সঙ্গে ২টি ছক্কার মারও ছিল তার ব্যাটে। শেষ দিকে তো ঝড়টা তুলেছিলেন বেন কাটিং। ১৫ বলে ৩টি চার আর ৪টি ছক্কায় ৩৯ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত ৭ উইকেট হারিয়ে হায়দারাবাদের ইনিংস গিয়ে দাঁড়ায় ২০৮ রানে। ব্যাঙ্গালুরুর হয়ে ৪৫ রান দিয়ে ৩ উইকেট নেন ক্রিস জর্ডান। ২ উইকেট নেন শ্রীনাথ অরবিন্দ। ইয়ুজবেন্দ্র চাহাল নেন ১ উইকেট।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com