,

ওয়ার্নারের দায়িত্বশীল ব্যাটিং-এ ফাইনালে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ

দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে টস জিতে গুজরাটকে ব্যাটিংয়ে পাঠান ওয়ার্নার। আইপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচটিতে সুরেশ রায়নার গুজরাটকে চার উইকেটে হারিয়েছে সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদ। চার বল বাকি থাকতেই ১৬৩ রানের লক্ষ্য টপকে যায় টম মুডির শিষ্যরা। অধিনায়কের দায়িত্বশীল একটি ইনিংস খেলে দলের জয় নিশ্চিত করেই মাঠ ছাড়েন ওয়ার্নার। একটা পর্যায়ে দলীয় ৮৪ রানের মধ্যে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটেই চলে যায় সানরাইজার্স। তবে অপর প্রান্ত আগলে রেখে একাই লড়ে যান ওয়ার্নার।

চাপের মুখে থেকেও ৫৮ বলে ১১ চার ও ৩ ছক্কায় ৯৩ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে অপরাজিত থাকেন ওয়ার্নার। শেষদিকে, মাত্র ১১ বলে ২৭ রান করে দলের জয় নিশ্চিতে কার্যকরী ভূমিকা রাখেন স্পিন অলরাউন্ডার বিপুল শর্মা। তার আগে ময়েজেস হেনরিকস ১১, যুবরাজ সিং ৮, দিপক হুদা ৪, বেন কাটিং ৮ ও নামান ওঝা ১০ রান করে আউট হন। আর ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই রান আউটের ফাঁদে পড়েন শিখর ধাওয়ান (০)।ডোয়াইন ব্রাভো ও বাঁহাতি স্পিনার শিভিল কৌশিক দু’টি করে উইকেট নেন। দুই ওভারে ২৯ রান খরচায় বাকি উইকেটটি পান ডোয়াইন স্মিথ। মুস্তাফিজুরের জায়গায় এবারের আসরে প্রথমবারের মতো একাদশে সুযোগ পান ট্রেন্ট বোল্ট। তিন স্পেলে চার ওভারে ৩৯ রানের বিনিময়ে গুজরাট দলপতি রায়নার (১) উইকেট নেন নিউজিল্যান্ড পেসার। পাশাপাশি ওপেনার একলাভইয়া দ্বিবেদীর (৫) ক্যাচ ও দিনেশ কার্তিককে (২৬) রান অাউটের ফাঁদে ফেলেন বোল্ট।

দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ার ম্যাচে টস জিতে গুজরাটকে ব্যাটিংয়ে পাঠান ওয়ার্নার। ভুবনেশ্বর-স্রান-বেন কাটিংরাও অধিনায়কের আস্থার প্রতিদান দেন। দিল্লির ফিরোজ শাহ কোটলা স্টেডিয়ামে নির্ধারিত ওভার শেষে সাত উইকেটে ১৬২ রানের সংগ্রহ দাঁড় করায় গুজরাট। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫০ রানের (৩২ বল) কার্যকরী ইনিংস খেলেন মিডল অর্ডারে নামা অ্যারন ফিঞ্চ। ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ব্যাট থেকে আসে ২৯ বলে ৩২। ১০ বলে ২০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে শেষ ওভারে বিদায় নেন ডোয়াইন ব্রাভো। ১৫ বলে ১৯ রান করে অপরাজিত থাকেন রবিন্দ্র জাদেজা।

সানরাইজার্স বোলারদের মধ্যে ভুবনেশ্বর কুমার ও বেন কাটিং দু’টি করে উইকেট লাভ করেন। বোল্ট ও বাঁহাতি স্পিনার বিপুল নেন একটি করে। ছয় বোলারের মধ্যে শুধুমাত্র ভুবনেশ্বর ও বোল্ট চার ওভারের কোটা পূরণ করেন। বারিন্দার স্রান ৩ ওভারে ২৮ ও ময়েজেস হেনরিকস সমান ওভারে ২৭ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থাকেন। এক ওভার করে কম করা শর্মা ২১ ও ২০ রান দিয়ে সবচেয়ে কৃপণ বোলার থাকেন অজি অলরাউন্ডার কাটিং।আগামী ২৯ মে (রোববার) আইপিএলের নতুন চ্যাম্পিয়ন দেখবে ক্রিকেট বিশ্ব। নবম আসরের শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে স্বাগতিক রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর মুখোমুখি হবে সানরাইজার্স। বেঙ্গালুরুর এম চিন্নাস্বামী স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ সময় রাত সাড়ে ৮টায় হাইভোল্টেজ ম্যাচটি শুরু হবে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com