,

৪৭২ কন্যার বিয়ে দিয়ে গর্বিত ‘বাবা’!

গত কয়েক বছর ধরেই তিনি এই কাজ করছেন। আর তাতেই নাকি জীবনের সব সুখ আর আনন্দ পান তিনি। পরিবারের পক্ষ থেকেও সহযোগীতা পেয়ে আসছেন প্রথম  থেকেই। আর তাই এই কাজ। গুজরাতের ভাবনগর গ্রামের বাসিন্দা মহেশ শিভাঙ্গির। পেশায় হিরের ব্যবসায়ী। গত কয়েক বছরে ৪৭২ জন মেয়ের বিয়ে দিয়ে রেকর্ড গড়েছেন তিনি। প্রত্যেককেই এখনও পর্যন্ত রীতিমতো ঘটা করেই বিয়ে দিয়েছেন এই ‘বাবা’। সোনার গয়না ও নতুন সংসার বসানোর জন্য সব সরঞ্জাম সহ ৪ লাখ টাকা করে প্রত্যেক কন্যার জন্য বিয়েতে খরচ করেন তিনি। চলতি বছরেও ২১৬ জনকে কন্যাকে তিনি বিয়ে দেবেন বলে ঠিক করেছন।

আজ থেকে ৪০ বছর আগে বাবার হাত ধরে ভাবনগরে আসেন মহেশ। সেখানেই তাদের পৈতৃক ব্যবসা শুরু হয়। বাবার মৃত্যুর পর সেই কাজের দায়িত্ব বর্তায় তাঁর উপর। ব্যবসার পাশাপাশি তিনি সিদ্ধান্ত নেন সমাজ সেবায় নিজেকে নিয়োগ করবেন। সেই চিন্তা থেকেই এই কাজ। সিদ্ধান্ত নেন সমাজের সেই মেয়েদের বিয়ের দায়িত্ব নিজের কাধে তুলে নেবেন যারা ছেলেবেলায় বাবা-মাকে হারিয়েছেন। শুধু বিয়ে দেওয়াই নয় রীতিমতো ঘটা করেই সেই বিয়ে দেবেন। সম্প্রদানও করবেন। সেই থেকেই শুরু এই কাজ। তবে, তাঁর এই কন্যাদানে নেই ধর্মের কোনও বাধা।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com