অভিজিৎ হত্যাকাণ্ডের তদন্ত শিগগিরই শেষ হবে: মনিরুল

নববার্তা রিপোর্ট : লেখক ও ব্লগার অভিজিৎ রায় হত্যাকাণ্ডে এ পর্যন্ত মোট ১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই মামলায় আরও ৫ জনের সরাসরি সম্পৃক্তার তথ্য পাওয়া গেছে। তাদের গ্রেফতার করতে পারলেই তদন্ত কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান মনিরুল ইসলাম।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন। সোমবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) অভিজিৎ হত্যাকাণ্ডের তিন বছর পূর্ণ হবে।

মনিরুল ইসলাম বলেন, এই মামলাটি শুরুতে ডিবি তদন্ত করেছে। ৩ মাস আগে সিটিটিসি তদন্তের দায়ভার নেয়। এর আগে ডিবি ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মোট ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে। সিটিটিসি গ্রেফতার করেছে ৩ জনকে। মুকুল রানা নামের একজন ডিবি পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

সিটিটিসির ফুটেজ দেখে গ্রেফতার ৩ জন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তাদের জবানবন্দি অনুযায়ী ডিবি ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেফতার হওয়া ৭ জনের মধ্যে ৩ জনের এই মামলায় কোনো সম্পৃক্ততা ছিল না। এ ছাড়াও তাদের জবানবন্দি অনুযায়ী আনসার আল ইসলামের প্রধান মেজর জিয়াসহ ৫ জনকে খুঁজছি আমরা। মেজর জিয়া ঘটনাস্থলে উপস্থিত থেকে নিজেই অপারেশনটি দেখেছেন। এই ৫ জনের মধ্যে ২-৩ জনকে ধরতে পারলে আদালতে চার্জশিট দেয়া হবে। আমরা খুব তাড়াতাড়ি তদন্তকাজ শেষ করার বিষয়ে আশাবাদী।

২০১৫ সালের ২৬শে ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় একুশে বইমেলার কাছে অভিজিৎ রায়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। হত্যাকাণ্ডের সময় তার স্ত্রী রাফিদা আহমেদও আহত হন। অভিজিৎ রায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক অধ্যাপক অজয় রায়ের ছেলে।

নববার্তা/নজরুল

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ




টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com