,

আশুলিয়ায় ব্যাংক ডাকাতি, ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড

সাভারের আশুলিয়ায় কমার্স ব্যাংকে ডাকাতি ও আটজন হত্যা মামলায় ছয়জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত। একই মামলায় একজনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। দুইজনকে তিন বছরের কারাদণ্ডসহ দুইজনকে খালাস দেয়া হয়েছে।  মঙ্গলবার ঢাকা জেলা ও দায়রা জজ এস এম কুদ্দুস জামান এ আদেশ দেন। এর আগে ২১ ফেব্রুয়ারি ১১ আসামির বিচার শুরুর আদেশ দেয় আদালত।  ঢাকা জেলা ও দায়রা জজ এস এম কুদ্দুস জামান বৃহস্পতিবার চাঞ্চল্যকর এ মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করে সাক্ষ্য শুরুর জন্য ১ ফেব্রুয়ারি দিন ঠিক করে দেন।
 
দশ আসামির অব্যাহতির আবেদন নাকচ করে তাদের বিচার শুরুর নির্দেশ দেয়া হয়। গত বছরের ২১ এপ্রিল আশুলিয়ার কাঠগড়া বাজারে কমার্স ব্যাংকের শাখায় ডাকাতিতে বাধা দিলে ব্যাংক কর্মচারীসহ আটজনকে ছুরিকাঘাত ও গুলি করে হত্যা করা হয়।  পরে গ্রেফতার আসামিদের কাছ থেকে লুটের ছয় লাখ সাত হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। এ মামলায় গত ১ ডিসেম্বর পুলিশ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দিলে ৭ জানুয়ারি বিচারক তা আমলে নিয়ে অভিযোগ গঠনের শুনানির দিন ঠিক করে দেন।
 
আসামিরা হলেন- বোরহানউদ্দিন, সাইফুল আলামিন, বাবুল সরদার, মিন্টু প্রধান, মো. জসীমউদ্দিন, আব্দুল বাতেন, মোজাম্মেল হক, উকিল হাসান, মাহফুজুল ইসলাম, শাজাহান জমাদ্দার ও পলাতক পলাশ ওরফে সোহেল রানা।  এদের মধ্যে বাবুল সরদার, মিন্টু প্রধান, উকিল হাসান ও শাজাহান জমাদ্দার বাদে অন্যরা জেএমবির সদস্য। আর মাহফুজুল ইসলাম আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের একজন শীর্ষ নেতা বলে দাবি পুলিশের। গত মে মাসে ঢাকার বাড্ডা থেকে তাকে গ্রেফতারের সময় ঢাকা জেলা পুলিশের সাভার সার্কেলের সহকারী সুপার নাজমুল হাসান ফিরোজ জানিয়েছিলেন, ডাকাতির ঘটনায় মাহফুজ ছিলেন ‘অপারেশন কমান্ডার’।
 
তদন্ত চলার মধ্যেই আসামিদের মধ্যে সাতজন ঘটনার দায় স্বীকার করে হাকিমের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জাবনবন্দি দেন।  পলাতক আসামি পলাশ ওরফে সেহেল রানার পক্ষে এই মামলা লড়ছেন রাষ্ট্রনিযুক্ত আইনজীবী মো. মিজানুর রহমান। এছাড়া আদালতের আদেশে মাহফুজুল ইসলাম ওরফে আজিম ওরফে শামীম ওরফে জামিলের পক্ষেও একজন আইনজীবী নিয়োগ দিয়েছে রাষ্ট্র।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

আরও অন্যান্য সংবাদ


Nobobarta on Twitter




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com