,

উচ্ছেদ আতংকে দিন কাটছে ভুগরইল গ্রামের আদিবাসীদের: জাতীয় আদিবাসী পরিষদের পরিদর্শন

সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম # রাজশাহী জেলার শাহমুখদুম থানার ভুগরইল খ্রিষ্টানপাড়া আদিবাসী পাহাড়ীয়া সম্প্রদায়ের লোকজন উচ্ছেদ আতংকে বসবাস করছেন। একই গ্রামের মকশেদ আলীর নেতৃত্বে চিহ্নিত ভুমিদস্যুরা আবার নতুন করে সংঘটিত হচ্ছে। ঐ সকল ভূমি সন্ত্রাসীরা তাদের পূর্ব-পরিকল্পিত নিশানা বাস্তবায়ন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। যে কারনে ভুক্তভোগী অসহায় আদিবাসীদের মাঝে তীব্র আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।

এরই ধারাবাহিতকায় গত ২১ নভেম্বর ২০১৫ পার্শবর্তী বিলে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে এলাকার সেরাজুল ইসলামের ছেলে জাহাঙ্গীরের(২২) নেতৃত্বে ভূমিদস্যুরা গ্রামের আদিবাসী মেয়েদের মারধর করে এবং গ্রামের রতন বিশ্বাসের বসতবাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। এই ঘটনায় ভুগরইল খ্রিষ্টানপাড়া আদিবাসী পাহাড়ীয়া সম্প্রদায়ের লোকজনের মধ্যে তীব্র আতংক বিরাজ করছে। এমনকি রাস্তা দিয়ে যাতায়াতে হুমকি দিচ্ছে বলে আদিবাসীরা অভিযোগ করেছে। এই ঘটনায় আজ ২২ নভেম্বর ২০১৫ তারিখে শাহমখদুম থানায় একটি আভিযোগ দায়ের করেছে।

 

জানা গেছে, এ সকল চিহ্নিত ভুমিদস্যুরা বিভিন্ন সময়ে উপজেলা সদর সহ বিভিন্ন স্থানে কৃষক ও ভূমি মালিকদের জমি জোর পূর্বক দখল করে নেয়। এরই ধারাবাহিকতায় ভুগরইল গ্রামের মিশনের দান করা জমি ও কবরস্থান দখলের পায়তারা করছেন তারা। বসত বাড়ি এখনো দখলে থাকলেও কবরস্থান প্রায় দখল করে ফেলেছেন এই ভূমিদস্যুরা। এমকি মিশনের জমিতে যে একটি পুকুর রয়েছে সেখানেও মাছ ধরতে বিভিন্নভাবে বাধা প্রদান করে আসছে। ইতোপূর্বে ঐ সকল ভুমিদস্যুদের প্রতিহত করতে বিভিন্ন আদিবাসী নেতৃবৃন্দের সহযোগীতায় কৃষক ও ভূমি মালিকরা প্রতিবাদ সমাবেশ ও মনববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।

এতে সাময়িকভাবে প্রতিহত করতে পারলেও বর্তমানে তারা পূর্ব-পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে নতুন করে সংঘঠিত হতে শুরু করেছে । যে কারনে গ্রামের আদিবাসী মানুষের মাঝে নতুন করে ভূমিদস্যু আতঙ্ক বিরাজ করছে। আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ঐ সকল চিহ্নিত ভূমিদস্যুদের তৎপরতা প্রতিহত করছে না বরং ভূমিদসূদের সহযোগীতা করছেন বিভিন্ন নামে। আদিবাসী অধ্যুষিত এ অঞ্চলের অধিকাংশ জনগন স্বল্প শিক্ষিত এবং নিরক্ষর। তাদের জীবন জীবিকা কৃষি নির্ভর। মিশনের দানকৃত ৩০ শতক জমির উপর এই গ্রামের ৫৫ টি পরিবার বসবাস করে আসছে।

 

এসব নিরীহ নিরক্ষর কৃষকেরা কৃষি জমি চাষ ও অন্যের বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করে থাকে। ভূমিদস্যুরা উক্ত গ্রামে বিদ্যুত দেওয়ার নামে খোজ খবর নিয়ে এ আদিবাসী নিরীহ নিরক্ষর জমি মালিকদের টার্গেট করে তাদের দুর্বলতার সুযোগকে কাজে লাগিয়ে ঐ সকল স্বল্প শিক্ষিত এবং নিরক্ষর কৃষকদের ভূল বুঝিয়ে তাদের জায়গা জমি দখল করে নেওয়ার পাঁয়তারা চালাচ্ছে। চিহ্নিত এ সকল ভূমিদস্যুদের সংঘবদ্ধ করার নেপথ্যে রয়েছে রাজশাহী শাহমখদুম থানায় বসবাসকারী অস্ত্রধারী, চাঁদাবাজ, হত্যা মামলার আসামী ও স্থানীয় কমিশনার। এ সকল চিহ্নিত ভূমিদস্যুদের ভূমি দখল তৎপরতার হাত থেকে রেহাই পেতে ভূক্তভোগী এলাকাবাসী ভূমি মন্ত্রনালয়, প্রশাসন সহ আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর স্থানীয় ও উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কমনা করেছেন ।

 

এদিকে আদিবাসী গ্রামের মানুষের কথা, মিশনের দানের এই জমি যদি ভূমিদস্যুরা দখল করে নেয় তাহলে যুগ যুগ ধরে বসবাস করা ওখানকার আদিবাসীদের গ্রামসহ বাড়ি ঘর ছেড়ে তাদের পালাতে হবে। এমন কি তাদের উচ্ছেদের হুমকিও দিয়ে রেখেছেন ভূমিদস্যুরা। তাই এই গ্রামের আদিবাসীরা নিজ ভূমিতে পরবাসীর মতো জীবন যাপন করছেন। গ্রামবাসী আরো জানান, ভূমিদস্যুদের এই অত্যাচারের কথা বাগানপাড়া মিশনের ফাদারকে জানালেও তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না । তাই গ্রামবাসী মানুষ অভিভাবকহীন হয়ে পড়েছে। নেতৃত্ব পেলে তারা রুখে দাঁড়াতে পারে। আতংকিত গ্রামে আবারও শান্তি ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

 

ভুগরইল গ্রামের কৃষ্ণ বিশ্বাস বলেন, “বাংলাদেশের নাগরিক হয়েও তারা আদিবাসী। কিন্তু নেই নিজস্ব ভিটেমাটি কিংবা ফসলি জমি। মিশনের দানকৃত জমিতে বসবাস করে জীবিকা নির্বাহ করতে হচ্ছে বছরের পর বছর ধরে। ভূমিহীন হিসাবে পরগাছার মতো বসবাস করা এই আদিবাসীদের দিন কাটছে উচ্ছেদ আতংকে। তাই আমরা নিরাত্তার সাথে আমাদের জমিতে বসবাস করতে চাই।”

ভুগরইল গ্রামের আদিবাসীদের এই দুরাবস্থার কথা শুনে আজ ২২ নভেম্বর ২০১৫ তারিখ বিকেলে জাতীয় আদিবাসী পরিষদ, আদিবাসী যুব পরিষদ ও আদিবাসী ছাত্র পরিষদের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে যান। এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় আদিবাসী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক সূভাষ চন্দ্র হেমব্রম, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বিভূতী ভূষণ মাহাতো, আদিবাসী যুব পরিষদ রাজশাহী জেলার যুগ্ম-আহ্বায়ক হুরেন মুর্মু, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি হেমন্ত মাহাতো, আদিবাসী ছাত্র পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির নারী বিষয়ক সম্পাদক সুমিতা রবিদাস, দপ্তর সম্পাদক আপেল মুন্ডা, নওগাঁ জেলার সাংগঠনিক সম্পাদক চঞ্চল মাহাতো।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com