,

শপথ নিলেন সিলেট বিভাগের ১৬টি পৌরসভার মেয়র

বুধবার দুপুর পৌনে ১২টার দিকে সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে সিলেট বিভাগের ১৬টি পৌরসভার নব নির্বাচিত মেয়ররা শপথ গ্রহন করেছেন। তাদের শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়।

মেয়রদের শপথ বাক্য পাঠ করান সিলেটের বিভাগীয় কমিশনার জামাল উদ্দিন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন- কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সুনমাগঞ্জের জেলা প্রশাসকসহ সরকারী উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এর আগে গত ৩০ ডিসেম্বর সিলেটের ১৬টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছিল। ১৬টি পৌরসভার মধ্যে মাত্র তিনটিতে বিএনপি প্রার্থীরা বিজয়ী হন। বাকি ১৩টিতেই আওয়ামী লীগ ও দলটির বিদ্রোহী প্রার্থীরা বিজয়ী হন।

সিলেট জেলার তিনটি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ওই তিনটি পৌরসভার মধ্যে একটিতে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ও দুইটি আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীরা দখলে নেন।

কানাইঘাট : এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী নিজাম উদ্দিন আল মিজান বিজয়ী হয়েছেন। তিনি নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে ৩ হাজার ৩৭৮ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ প্রার্থী লুৎফুর রহমান পেয়েছেন ২ হাজার ৮৯৭ ভোট।

জকিগঞ্জ : পৌরসভাটিতে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগ নৌকা প্রতীকের খলিল উদ্দিন। তিনি পেয়েছেন ১ হাজার ৫৩০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আল ইসলাহ প্রার্থী হিফজুর রহমান মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১ হাজার ৩৭১ ভোট। আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী ফারুক উদ্দিন পেয়েছেন ১ হাজার ৩৪৩ ভোট।

গোলাপগঞ্জ : ওই পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সিরাজুল জব্বার চৌধুরী বিজয়ী হয়েছেন। তিনি ৪ হাজার ৫৮২ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আমিনুর রহমান লিপন নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ৯৮৪ ভোট পেয়েছেন। এছাড়া আওয়ামী লীগের প্রার্থী জাকারিয়া আহমদ পাপলু পেয়েছেন ২ হাজার ২০২, বিএনপির গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী শাহীন ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ হাজার ১০২ ভোট।

মৌলভীবাজার: মৌলভীবাজার জেলায় চারটি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। তার মধ্যে মৌলভীবাজার সদর, কমলগঞ্জ ও বড়লেখা পৌরসভা আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন। শুধুমাত্র কুলাউড়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী হন।

কুলাউড়া : আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী (স্বতন্ত্র) শফি আলম ইউনুছ ৪ হাজার ২৩০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র কামাল উদ্দিন আহমদ জুনেদ পেয়েছেন ৪ হাজার ১৭৪ ভোট।

কমলগঞ্জ : নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী জুয়েল আহমদ ৩ হাজার ৯৯০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী জাকারিয়া হাবীব বিপ্লব পেয়েছেন ২ হাজার ৮৬০ ভোট।

বড়লেখা : পৌরসভাটিতে আওয়ামী লীগের মনোনীত মেয়র প্রার্থী আবুল ইমাম চৌধুরী কামরান ৪ হাজার ৪৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত স্বতন্ত্র প্রার্থী খিজির আহমদ পেয়েছেন ২ হাজার ৫৭৭ ভোট।

হবিগঞ্জ : হবিগঞ্জ জেলায় ৫টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওইসব পৌরসভার মধ্যে হবিগঞ্জ সদর, চুনারুঘাট, নবীগঞ্জে বিএনপি প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। এছাড়াও মাধবপুর ও শায়েস্তাগঞ্জে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন।

হবিগঞ্জ সদর : হবিগঞ্জ পৌরসভায় বিএনপি প্রার্থী জিকে গউছ ১০ হাজার ৭৯৭ ভোট পেয়ে পুনরায় মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী মিজানুর রহমান পেয়েছেন ৯ হাজার ২৬৪ ভোট।

মাধবপুর : হবিগঞ্জের মাধবপুর পৌর নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী হিরেন্দ্র লাল সাহাকে বেসরকারিভাবে মেয়র ঘোষণা দিয়েছেন উপজেলা রিটানিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাশেদুল ইসলাম। হিরেন্দ্র লাল সাহা পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৬৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মনোনীত প্রার্থী হাবিবুর রহমান মানিক ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ৪ হাজার ৯৪০ ভোট পেয়েছেন।

চুনারুঘাট : ওই পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী ধানের শীষ নিয়ে নাজিম উদ্দিন শামছু ৪ হাজার ৭৩৫ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ সাইফুল ইসলাম রুবেল পেয়েছেন ৪ হাজার ৭২১ ভোট।

শায়েস্তাগঞ্জ : ওই পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী ছালেক মিয়া ৩ হাজার ৯৭৩ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি ফরিদ আহমেদ অলি পয়েছেন ৩ হাজার ৮৯০ ভোট।

নবীগঞ্জ : ওই পৌরসভায় বিএনপি প্রার্থী ছাবির আহমেদ চৌধুরী ৫ হাজার ৬২১ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ তোফাজ্জুল ইসলাম চৌধুরী পেয়েছেন ৩ হাজার ৭৭৩ ভোট।

সুনামগঞ্জ : ওই জেলায় চারটি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এর মধ্যে চারটিতেই আওয়ামী লীগ প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।

সুনামগঞ্জ সদর : নৌকা প্রতীক নিয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আয়ুব বক্স জগলুল ১৪ হাজার ৫৩৩ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রার্থী দেওয়ান গনিউল সালাদিন ১০ হাজার ৪৩৪ ভোট পেয়েছেন। তিনি মোবাইল প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন।

জগন্নাথপুর : এ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রাথী নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন। আওয়ামী লীগ প্রার্থী হাজী আব্দুল মনাফ ৯ হাজার ৩২৪ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির রাজু আহমদ ধানের শীষ নিয়ে ভোট পেয়েছেন ৫ হাজার ৬৫১।

দিরাই : আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোশারফ মিয়া দিরাইয়ে বেসকারিভাবে নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি মোট ৭ হাজার ৪৪২ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী মঈন উদ্দিন চৌধুরী মাসুক ধানের শীষ নিয়ে ৬ হাজার ৪৯৫ ভোট পেয়েছেন।

ছাতক : ওই পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবুল কালাম চৌধুরী নৌকা প্রতীক নিয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তিনি ১০ হাজার ৮২৬ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী আব্দুল ওয়াহিদ মনজু মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে ৪ হাজার ৬৬১ ভোট পেয়েছেন।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com