,

পুলিশের সক্রিয়তার কারনে সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদ বাংলাদেশে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে নাই : প্রধানমন্ত্রী

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থা বিশেষ করে পুলিশের সক্রিয়তার কারনে  আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ-জঙ্গিবাদ বাংলাদেশে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে পারে নাই বলে সন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ।  সেজন্য পুলিশ বাহিনীকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেছেন,২০১৩ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত বিএনপি ও জামায়াত-শিবিরের সহিংসতা ও জঙ্গিবাদ মোকাবিলা করতে গিয়ে পুলিশের ২১ জন সদস্য মারা গেছেন। এ ছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী অন্যান্য বাহিনীর আরও ৫ জন সদস্য মারা গেছেন। আজ মঙ্গলবার রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইনসে আয়োজিত পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধন করে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসের সঙ্গে রাজারবাগের ইতিহাস স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। নিজের বক্তব্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, জাতীয় চার নেতা, স্বাধীনতার জন্য প্রাণ দেওয়া রাজারবাগের পুলিশ সদস্য এবং ৩০ লাখ শহীদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানান তিনি । বাংলাদেশ পুলিশ দেশের শান্তি, শৃঙ্খলা ও নিরাপত্তার প্রতীক বলেও মন্তব্য করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, দেশের সব সংকটে পুলিশ বাহিনী প্রশংসনীয় অবদান রেখে গেলেও এই বাহিনীর ওপর বারবার আঘাত আসে। এজন্য যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশ বাহিনীকে সমর্থ করতে এর লোকবলসহ অন্য সুবিধা বাড়ানোর কথা জানান তিনি। এ সময় পুলিশ বাহিনীর উন্নয়নে তাঁর সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কর্মসূচির কথা জানান তিনি। এই বাহিনীতে আরো ৫০ হাজার পদ সৃষ্টি করার প্রক্রিয়া হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানান শেখ হাসিনা।

সরকারের নেওয়া বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় পুলিশ বাহিনীকে আরো দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে। সারা বাংলাদেশের জরাজীর্ণ থানা ভবনগুলোর সংস্কার এবং প্রয়োজনীয় জনবল বাড়ানোর কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি। এ সময় সর্বোচ্চ দেশপ্রেম নিয়ে নিজেদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব পালন করতে পুলিশ সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
রাজারবাগ পুলিশ লাইনে দৃষ্টিনন্দন প্যারেডে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান পুলিশ সদস্যরা। প্যারেডে নেতৃত্ব দেন চাঁদপুরের পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার। প্রথমবারের মত একজন নারী কর্মকর্তার নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত হলো পুলিশ সপ্তাহের প্যারেড।

সালাম গ্রহণ করে পুলিশ সদস্যদের প্রতি দেয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী আহবান জানান জনগণের সেবক হয়ে কাজ করতে। স্বাধীন বাংলাদেশে ১৯৭৫ সালের ১৫ জানুয়ারি প্রথম পুলিশ সপ্তাহ পালন করা হয় উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, সেদিন পুলিশ সপ্তাহের উদ্বোধন করেছিলেন সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। সন্ত্রাসবাদ আর জঙ্গিবাদ দমনে সক্ষমতা বাড়াতে পুলিশের একটি বিশেষ ইউনিট গঠন করা হচ্ছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী। ২০১৫  সালে সাহসিকতা, দক্ষতা, শৃঙ্খলামূলক আচরণের জন্য পুলিশের ১০২ জন সদস্যকে দেয়া হয় বাংলাদেশ পুলিশ পদক বিপিএম এবং রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক পিপিএম।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com