,

শাবির শিক্ষকের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবেশ পথে ‘এককিলো’ এলাকায় প্রাইভেটকার চাপায় দুইজন মারা যাওয়ার ঘটনায় মামলা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান ড. আরিফুল ইসলামকে আসামি করে (রোববার) রাতে মামলাটি করেন নিহত কলেজ শিক্ষক আতাউর রহমানের স্ত্রী। এসএমপির জালালাবাদ থানার ওসি আখতার হোসেন মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন, নিহতের স্ত্রী ড. আরিফুল ইসলামকে আসামি করে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। যার নং-১৩/২৪.০১.২০১৬।

আসামি গ্রেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে বলে জানান ওসি। নিহত আতাউর রহমানের শ্যালক অ্যাডভোকেট মুহতাছিম বিল্লাহ মাকিনও মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, ঘটনার পর থেকে শাবি শিক্ষক ড. আরিফুল ইসলাম এবং পরিবারের সদস্যরা পলাতক রয়েছেন। তার মুঠোফোন বন্ধ এবং ফেসবুক আইডি ডিঅ্যাক্টিভেট রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনও জানে না ওই শিক্ষক কোথায় আছেন।

শনিবার শাবি প্রধান ফটকের পাশে ড্রাইভিং প্র্যাকটিস করার সময় মেকানিক্যাল বিভাগের শিক্ষক ড. আরিফুল ইসলামের প্রাইভেটকার চাপা দেয় পথচারি তিনজনকে। ঘটনাস্থলেই নিহত হন জগন্নাথপুর উপজেলার চাইলগাঁও ইউনিয়নের হাতিয়া গ্রামের ষাটোর্ধ্ব গিয়াস উদ্দিন। আহত ছাতক ডিগ্রি কলেজের প্রভাষক আতাউর রহমান ও তার মেয়ে রাহিবাকে ওসমানী মেডিকেল হাসপাতালে নেয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান আতাউর রহমান। তারা সিলেট নগরীতে বসবাস করতেন।

ঘটনার দিন অষ্টম শ্রেণির মেয়ে রাহিবার শাবি ক্যাম্পাস দেখার বায়না পূরণ করতে চাচা ও মেয়েকে নিয়ে শাবিতে গিয়েছিলেন শিক্ষক ও লেখক আতাউর রহমান। রোববার সকালে জানাযা শেষে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের নিজ বাড়িতে দাফন করা হয় গিয়াস উদ্দিন ও শিক্ষক আতাউর রহমানের লাশ।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com