,

“স্যামসাং স্টুডিও- ডিজাইন্ড বাই ইউ। মেইড বাই স্যামসাং”

 বিশাল উদ্দীপনা ও অপার সম্ভাবনা নিয়ে, স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ “স্যামসাং স্টুডিও” নামে একটি নতুন ক্যাম্পেইন শুরু করেছে। এই উদ্ভাবনী পদক্ষেপটি বাংলাদেশে স্যামসাংয়ের পণ্য ও সেবাতে স্থানীয়দের আরও সম্পৃক্ত করবে। স্যামসাং বাংলাদেশে তাদের মোবাইল ফোন মোড়কজাত (“ইউনিট বক্স”) করতে প্রথমবারের মত বাংলাদেশী ডিজাইন ব্যবহার করবে।

বিশ্বে স্যামসাং স্মার্টফোন, টিভি, রেফ্রিজারেটর, এলএফডি, ওয়্যারেবল এবং মেমোরি উৎপাদনে শীর্ষস্থানে রয়েছে। ব্র্যান্ড ভ্যালুর দিক থেকে বিশ্বের সপ্তম স্থানে অবস্থানকারী স্যামসাংয়ের ব্র্যান্ড ভ্যালু হচ্ছে  প্রায় ৪৫.৩ বিলিয়ন ইউএস ডলার। ৭৮ বছর বয়সী  “ইয়াং” কোম্পানীটি কনজ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স শো ২০১৬ তে ১০০ টির ও বেশি পুরষ্কার জিতে নিয়েছে।  এছাড়াও স্যামসাং ইন্টারনেট অব থিংস এর জন্য ফাস্ট কোম্পানী ২০১৫ এর মোস্ট ইনোভেটিব কোম্পানীগুলোর মাঝে জায়গা করে নিয়েছে যা বাংলাদেশে ব্যবসা পরিচালনাকারী কোম্পানীগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।

স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ ২০০৯ সালে তাদের যাত্রা শুরু করে। ২০১২-২০১৩ সালে স্যামসাংয়ের প্রবৃদ্ধি ছিল ১১০% (বাজার প্রবৃদ্ধি ১০%), ২০১৩-২০১৪ সালে প্রবৃদ্ধি ছিল ৬০% (বাজার প্রবৃদ্ধি ২০%) এবং ২০১৪-২০১৫ সালে প্রবৃদ্ধি ছিল ৭২% (বাজার প্রবৃদ্ধি ১১%)।

বাংলাদেশে স্যামসাংয়ের রয়েছে সর্বোচ্চ স্মার্টফোন ভ্যালু শেয়ার। স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ বিভিন্ন ধরণের নতুন নতুন ক্যাম্পেইনের উদ্ধোধন করেছে এবং এই ক্যাম্পেইনগুলো দেশ-বিদেশে ১৫টি অ্যাওয়ার্ড জিতে নেয়। এছাড়াও স্যামসাং এর ফেইসবুক পেইজটি বাংলাদেশের শীর্ষ ফ্যান পেইজ।

স্যামসাং বড় কিছু করার প্রত্যয় নিয়ে বাংলাদেশে উদ্বোধন করতে যাচ্ছে “মেইক ফর বাংলাদেশ” যার প্রথম পদক্ষেপ হচ্ছে “স্যামসাং স্টুডিও”।

স্যামসাং স্টুডিও নামের এই প্রতিযোগিতাটি বিশ্ববিদ্যালয় পড়য়া ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে অনুষ্ঠিত হবে। অংশগ্রহণকারীদেরকে  অনলাইন পোর্টালের মাধ্যমে (জানুয়ারী ২৪- ফেব্রুয়ারী,২০১৬) তাদের ডিজাইন জমা দিতে হবে। ডিজাইনিং, মার্কেটিং এবং আর্ট বিশেষজ্ঞ একদল বিচারকের মাধ্যমে বিজয়ীকে নির্বাচন করা হবে।

চূড়ান্ত ভাবে নির্বাচিত ডিজাইনটি একটি গালা ইভেন্টের মাধ্যমে উন্মোচন করা হবে। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বিজয়ী ও চূড়ান্ত পর্বে অংশগ্রহণকারীদেরকে পুরষ্কৃত করা হবে।  প্রথম পুরষ্কার হিসেবে বিজয়ী পাবেন নগদ ১ হাজার ইউ এস ডলার। এছাড়া দুই রানার আপকে দেওয়া হবে দুটি গ্যালাক্সি জে৭ হ্যান্ডসেট  এবং শীর্ষ দশজন পাবেন স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে সার্টিফিকেট। নির্বাচিত ডিজাইনটি বাংলাদেশে স্যামসাং হ্যান্ডসেটের লক্ষ লক্ষ মোড়কে ব্যবহৃত হবে।

স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ ২০১৬ এর ২৪ জানুয়ারি থেকে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে রোড শো করবে যার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীরা স্যামসাং স্টুডিও সম্পর্কে জানতে পারবে। রোড-শোটির মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে অনুষ্ঠানিকভাবে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্যও আমন্ত্রণ জানানো হবে।

বড় সাফল্যের সাথে আসে বড় দায়িত্ব। তাই স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ দেশের বাজারে বিশাল সাফল্য ও ব্র্যান্ড লয়্যালটির কারণে বাংলাদেশে স্যামসাংকে আরো বিস্তৃত করতে এই পদক্ষেপ নিয়েছে। স্যামসাং স্টুডিও হচ্ছে আগত  এ ধরণের বিভিন্ন পদক্ষেপের একটি ।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com