,

বিশ্ব মানবতার শান্তি কামনার মধ্য দিয়ে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

দেশ, জাতি ও মুসলিম উম্মাহসহ বিশ্বের সকল মানুষের শান্তি, সমৃদ্ধি ও উন্নতি কামনায় শেষ হলো ৫১ তম বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। মোনাজাতে ৩০ লাখের মতো মুসল্লি অংশ নিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। মুসল্লিদের আমিন আমিন ধ্বনিতে পুরো ইজতেমা ময়দান ও এর আশপাশের এলাকায় ধর্মীয় আমেজ বিরাজ করে। রবিবার সকাল ১১টা ৬ মিনিটে মোনাজাত শুরু হয়ে চলে সকাল ১১টা ৩৩ মিনিট পর্যন্ত। প্রায় ২৭ মিনিট ধরে চলা মোনাজাত পরিচালনা করেন তাবলিগ জামাতের অন্যতম প্রবীণ ও শীর্ষ মুরুব্বি ভারতের মাওলানা সাদ। মোনাজাতের আগে তিনি মুসল্লিদের উদ্দেশে হেদায়েতি বয়ান দেন।

 

মোনাজাতে মহান আল্লাহর কাছে দুই হাত তুলে কেঁদে কেঁদে দোয়া করেন মুসল্লিরা। তারা সকল পাপ ও অন্যায় থেকে মুক্তির জন্য আকুতি-মিনতি করেন। দেশ-জাতি-মানবতার কল্যাণ ও সমৃদ্ধি চেয়েছেন। মানুষের জন্য রহমত ও শান্তি কামনা করেছেন। এ সময় আমিন আমিন ধ্বনিতে মুখরিত হয় ওঠে ইজতেমা ময়দান। আল্লাহর কাছে মাগফেরাত কামনায় কান্নার রোল পড়ে মুসল্লিদের মধ্যে। এবারের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে ১৬টি জেলার তাবলিগ জামাতের মুসল্লিদের পাশাপাশি দেশি বিদেশি লাখ লাখ মুসল্লি অংশ নেন। গত দুই দিন তাবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরব্বিরা ঈমান, আমল, আখলাকসহ ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন মৌলিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। ইজতেমা ময়দান ও ময়দানের আশপাশ এলাকায় যতদূর চোখ যায় শুধু মুসল্লি আর মুসল্লি।

 

উল্লেখ্য, স্থান সংকুলান সমস্যাসহ মুসল্লিদের বিভিন্ন অসুবিধার কথা বিবেচনা করে ২০১১ সাল থেকে দুই দফায় বিশ্ব ইজতেমার আয়োজন করা হচ্ছে। তবে এবারই প্রথম দেশের ৩২টি জেলা দুই পর্বে ইজতেমায় অংশ নেয়। বাকি ৩২ জেলার মুসল্লিরা আগামী বছর ইজতেমায় অংশ নিবে। ইজতেমায় আসা মুসল্লিদের সর্বাত্মক নিরাপত্তা দিতে পুলিশের পাশাপাশি বিপুল পরিমাণ সাদা পোশাকধারী বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরাও নিয়োজিত ছিলেন। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে মুসল্লিদের সুবিধার্থে শনিবার দিবাগত রাত থেকে টঙ্গী ও এর আশপাশের এলাকায় যানবাহন চলাচলে বিধিনিষেধ আরোপ করেছে পুলিশ। আজ সন্ধ্যা পর্যন্ত এ বিধিনিষেধ বলবৎ থাকবে।

ফেসবুক থেকে মতামত দিন

নববার্তা.কম এর সংবাদ পড়তে লাইক দিন নববার্তা এর ফেসবুক ফান পেজে

আরও অন্যান্য সংবাদ


Udoy Samaj

টুইটর




Social Media Auto Publish Powered By : XYZScripts.com